নগরীতে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনবিরোধী সমাবেশ

49

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী মহানগরীতে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার বড় মসজিদ চত্বরে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানা এর আয়োজন করে। আরএমপির বিভিন্ন বিট পুলিশিং কমিটির সদস্যরা নারী নির্যাতনবিরোধী আলাদা আলাদা র‌্যালি নিয়ে এই সমাবেশে যোগ দেন।
এ সময় তারা সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে মানববন্ধন করেন। পরে বড় মসজিদের সামনে সমাবেশ হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক।

পুলিশ কমিশনার বলেন, রাজশাহী মহানগরী একটি শিক্ষার নগরী, ¯িøসিটি, গ্রীণসিটি। রাজশাহী মহানগর হবে অন্যান্য শহরের চাইতে মডেল শহর। রাজশাহী মহানগরকে প্রাতিষ্ঠানিক মডেল শহর হিসেবে রুপান্তর করতে মেয়র মহোদয় সহ আরো যারা সংশ্লিষ্ট কাজ করে যাচ্ছেন তাদেরকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান।
তিনি আরো বলেন, যে, নারীরা আমাদের অর্ধাঙ্গিনী। সমাজের উন্নয়ের জন্য পুরুষের পাশাপাশি নারীদের ভুমিকাও গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশে পুরুষের ন্যায় নারীদের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী নিরোলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী যে উন্নয়নে ২০২১, ২০৪১ ও ২০৭১ সালে ১০০ তম বছর পূর্তি উপলক্ষে উন্নত ও ডেল্টা প্লানের যে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তাঁর উন্নয়নের ধারাবাহিকতা চলতে গেলে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। নারীকে পিছিয়ে রেখে একটা সমাজ বা দেশ এগিয়ে যেতে পারে না। নারীরা হচ্ছে আমাদের মা, আমাদের বোন আমাদেরই সন্তান।
পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, নারীদের প্রতি আমাদের সহনশীল হতে হবে। সামাজিক মূল্যবোধ ও সামাজিক অবক্ষয়ের দিকে আমাদের সমাজ যে ভাবে খারাপের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তাহলে আমরা দেশ ও জাতিগত ভাবে পিছিয়ে যাবো। তিনি আরো বলেন নৈতিকতার অবক্ষয় থেকে বাঁচতে হলে আমাদেরকে পরিবারের পিতা-মাতা, সন্তান এবং শিক্ষক সমাজকে আরো সচেতন হতে হবে।
তিনি যুবকে উদ্দেশ্যে বলেন আজকে দিনটা আমার আগামী দিন তোমাদের। আজকে যদি যুব সমাজ নষ্ট হয়ে যায় তাহলে প্রধানমন্ত্রীর ১০০ বছরের যে ডেল্টা প্লান করেছেন ২০৪১ সালের মধ্যে যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছেন তা প্রাতিষ্ঠানিক রুপ দেওয়া সম্ভব নয়। অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন যে, আপনার সন্তান কার সঙ্গে মিশে, কোথায় যায়, কি করে সে বিষয়ে খোঁজ খবর রাখবেন।

তিনি আরো বলেন রাজশাহী শহরে কোন কিশোর গ্যাং, বাইকার গ্যাং, মাদক, সন্ত্রাসী এবং জঙ্গি থাকবে না। রাজশাহী শহরকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হবে। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন আমরা সবাই ওয়াদা করবো যে, রাজশাহী শহরে কোন ইভটিজিং, কোন মাদক, কোন সন্ত্রাসবাদী, জঙ্গিবাদী কাজকে প্রশ্রয় দিবো না। যে যে ধর্মেরই মানুষ হইনা কেন সন্তানকে সেই ধর্মের ধর্মীয় মূল্যবোধের শিক্ষা দিতে হবে। যে সব সন্তানেরা বিপথে গেছে তাদেরকে খেলাধুলার মাধ্যমে সঠিক পথে ফিরিয়ে আনতে হবে এবং তাদের মনোনশীলতা বৃদ্ধি করতে হবে যাতে করে প্রত্যেকটি সন্তান যেন দেশের সুনাগরিক হয়ে গড়ে উঠতে পারে।

এই সমাবেশ উপস্থিত ছিলেন আরএমপি অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মোঃ সুজায়েত ইসলাম,উপ-পুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া) মোঃ সাজিদ হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা শাখা) আবু আহাম্মদ আল মামুন, শ্যামল কুমার ঘোষ, সেক্রেটারী, হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রীষ্ট্রান ঐক্য পরিষদ, রাজশাহী, অঞ্জনা চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক মহিলা পরিষদ, রাজশাহী জেলা শাখা, নিজাম উল আজিম, ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিল, সাবেরা ইয়াসমিন, শিক্ষিকসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ।

উল্লেখ, নারী ধর্ষণ ও নির্যাতনের ব্যাপারে আজকে প্রায় ৬৯২১ টা বিট এক যোগে আইজিপি মহোদয়ের নির্দেশে বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে কাযক্রম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তিনি এই বিট পুলিশিং আয়োজকদের সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

SHARE