মোহনপুরে চার মাদক মামলার আসামি টাকার বিনিময়ে হয়ে গেল সেবনকারি

160

মোহনপুর প্রতিনিধি : রাজশাহীর মোহনপুরে চারটি মাদক ব্যবসায়ী মামলার আসামি ও এলাকার চিহৃত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে সেবনকারি হিসেবে ২৬ ধারায় মামলা দায়ের করে  শুক্রবার জেল-হাজতে প্রেরণ করেছেন পুলিশ। বিনিময়ে পুলিশকে দিতে হয়েছে ১৯ হাজার টাকা। নিভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধার সময় মোহনপুর থানার এস আই জান্নাতুন ফেরদৌস আমরাইল গ্রামের মোবারক হোসেনের ছেলে চারটি মাদক ব্যবসায়ী মামলার আসামি এলাকার চিহৃত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মামুন (৪২) কে ২৫০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। থানার জেল-হাজতে রাখার পর গভীর রাত পর্যন্ত ইয়াবা দিয়ে মামলা দেয়ার ভয় দেখিয়ে প্রথমে ৫০ হাজার টাকা দাবি করতে থাকেন থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই নজরুল ইসলাম ও এস আই জান্নাতুন ফেরদৌস। এক পর্যায়ে ১৯ হাজার টাকার বিনিময়ে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মামুনের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়রি করে। ডায়রি নং-২৩। গতকাল শুক্রবার শীর্ষ ব্যবসায়ী মামুনকে মাদক সেবনকারি হিসেবে ১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য আইনে ২৬ ধারায় মামলা দিয়ে জেল-হাজতে প্রেরণ করেছেন পুলিশ। মোহনপুর থানায় মামুনের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালে ১টি ও ২০১৮ সালে তিনটি মাদকদ্রব্য আইনে ২২(গ) ধারায় চারটি মামলা রয়েছে। বর্তমানে মামলাগুলো আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মামুনকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তারের পর সেবনকারি হিসেবে পুলিশ মামলা দেয়ায় সাধারণ মানুষের ক্ষিাভের সৃষ্টি হয়েছে। মোহনপুর থানায় দায়িত্বে থাকা অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) আফজাল হোসেনের কাছে একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে কেন ২৬ ধারা মামলায় জেল-হাজতে প্রেরণ করা হলো জানতে চাইলে তিনি বলেন গ্রেপ্তার সময় তার কাছে মাদক না পাওয়ায় সেবনকারি হিসেবে মামলা দেয়া হয়েছে। রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার মো: শহিদুল্লাহ পিপিএম এর সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

SHARE