চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবেলায় সরকার দক্ষ মানবসম্পদের উপর গুরুত্ব দিচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী

84

স্টাফ রিপোর্টার : শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের কারণে আগামী দিনের শ্রম বাজার দখল করবে আটিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও রোবট। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সরকার দক্ষ মানবসম্পদের উপর গুরুত্ব দিচ্ছে। পরিবর্তিত বিশ্বে আমাদের নতুন নতুন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিনিয়োগ জিডিপির ৬ শতাংশে উন্নীত করার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে শুক্রবার ঐতিহ্যবাহী রাজশাহী কলেজের দুদিন ব্যাপী এইচএসসি অ্যালামনাই পুনর্মিলনী শুরু হয়েছে। দুপুর পৌনে ১২টায় প্রধান অতিথি হিসেবে দুদিন ব্যাপী কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী ইশতিহার অনুযায়ী শিক্ষার মানোন্নয়নে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। প্রতিটি স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। শিক্ষা পদ্ধতি ও মূূল্যায়ন পদ্ধতির পরিবর্তন আনা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমাদের সবাইকে পরিবর্তন হতে হবে, অন্যের সাথে সহযোগিতা ও সহমর্মিতার মনোভাব গড়ে তুলতে হবে । তিনি বলেন, গবেষণা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ। প্রতিটি ক্ষেত্রেই গবেষণা কার্য জোরদার করতে আরো মনোযোগী হতে হবে। এ দেশকে আরো এগিয়ে নিতে সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ভাষার দুর্বলতার কারণে আমাদের গবেষণা আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হচ্ছে না। উন্নত দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে এডিটরিয়াল বিভাগ রয়েছে। কিন্তু আমাদের দেশে তা নেই। এছাড়া আমাদের দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে হওয়া বহুমাত্রিক গবেষণার বিষয়ে আমাদের দেশীয় পত্রপত্রিকাতেও প্রকাশিত হয় না। স্বাধীনতার পর আমাদের অনেক সময় কেটেছে সামরিক ও স্বৈরশাসনের যাতাকলে কেটেছে। আগে আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যায় গুরুত্ব দিয়েছি। এখন সময় এসেছে শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করার। দেশের উন্নয়নের জন্য সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অ্যালামনাই পুনর্মিলনীর আহ্বায়ক ও কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দস, আয়েন উদ্দিন, সংসদ সদস্য ও অ্যালামনাই এর ঢাকা কমিটির আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার মাহতাব উদ্দীন, নারী সংরক্ষণ মহিলা আসনের সংসদ সদস্য আবিদা আঞ্জুম মিতা, আখতার জাহান, আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম ঠান্ডুসহ সাবেক নির্বাচন কমিশন, বিচারপতি. ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ারসহ সরকারি উধ্বর্তন কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে সকাল ৯টায় ঢাক-ঢোল, তবলা আর ব্যান্ডপার্টির বাদ্যের তালে তালে কলেজের রবীন্দ্র-নজরুল চত্বর থেকে শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি নগরীর সোনাদীঘির মোড়, সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট, কুমারপাড়া ও আলুপট্টি হয়ে কলেজ মাঠের মূলমঞ্চের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

সেখানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। দুদিনের কর্মসূচিতে রয়েছে আলোচনা, স্মৃতিচারণ, ছাত্রাবাসের স্মৃতিচারণ, সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা, আতশবাজিসহ নানা আয়োজন। কলেজ মাঠে প্রশাসন ভবনের আদলে তৈরি করা হয়েছে বিশালাকার মঞ্চ। রাতে মঞ্চ মাতান ব্যান্ড তারকা জেমস। রয়েছে ব্যান্ড দল চিরকুট। গাইছেন স্থানীয় শিল্পীরাও।

SHARE