‘মুক্তিযোদ্ধাদের একমাত্র ঠিকানা শেখ হাসিনা’

70

স্টাফ রিপোর্টার : লবণের গুজব, মাথাকাটা গুজব, শেখ হাসিনাকে নিয়ে গুজব, তার ছেলেকে নিয়ে গুজব, শেখ রেহানাকে নিয়ে গুজব। আমরা এ গুজব থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। আজকে অনেক মুক্তিযোদ্ধাকে যুদ্ধাপরাধীর তালিকায় দেখানো হয়েছে। এটা কষ্টের। তারা আজ দেশের শিক্ষা সেক্টর দখল করেছে, ধর্মতো আগেই দখল করেছে। মনে রাখতে হবে, মুক্তিযোদ্ধাদের একমাত্র ঠিকানা শেখ হাসিনা
গতকাল শুক্রবার ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস ও ১৮ ডিসেম্বর রাজশাহী মুক্ত দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। রাজশাহী মুক্তিযোদ্ধা সাংস্কৃতিক কমান্ড ও রাজশাহী বেতার শিল্পী সংস্থার আয়োজনে বড়কুঠি মুক্তমঞ্চে এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
বক্তারা আরো বলেন, রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ, মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ ও ৩০ লক্ষ রক্তের বিনিময়ে আমরা ১৯৭১ সালে ১৬ ডিসেম্বর পেয়েছি লাল সবুজের পতাকা। আমরা সেই ত্যাগকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি। বাঙালি বীরের জাতি কখনো মাথানত করেনি। ৯২ হাজার পাকিস্তানি সৈন্য মাথানত করে এ দেশ থেকে বিদায় নিয়েছে। এ বিজয় অনেক কষ্টের। মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তি আজও সক্রিয়। তারা মনে করে এ দেশ গুজবের দেশ। তারা গুজব ছড়িয়ে কত মা বোনকে মেরে ফেললো। কিন্তু আমাদের তা প্রতিহত করতে হবে।
রাজশাহী মুক্তিযোদ্ধা সাংস্কৃতিক কমান্ড এর সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মমিন কাজল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক রুহুল আমিন প্রমাণিক। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ বেতার রাজশাহীর আঞ্চলিক পরিচালক হাসান আখতার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, অ্যাডভোকেট রাশেদ উন নবী।

SHARE