নগরীতে ১৪০ টাকায় নতুন পেঁয়াজ

92

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর হাট-বাজারগুলোতে গতকাল সোমবার নতুন পেঁয়াজ ১৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে। এছাড়া দেশি ২ শ ও আমদানি করা পেঁয়াজ ১৮০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আজ আরও কমবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
গতকাল রাজশাহী মহানগরীসহ এর উপকণ্ঠের বাজারগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল শহরের উপকণ্ঠে নওহাটায় ছিল হাটবার। হাটে অন্যান্য সবজির সাথে আমদানি হয় নতুন কন্দ (ঢেমনা) জাতের পেঁয়াজের। এই পেঁয়াজ নওহাটা বাজারের খুচরা বিক্রেতারা ১৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি করে। বিক্রেতারা বলেন, এই সপ্তাহের মধ্যেই ব্যাপকভাবে নতুন পেঁয়াজের আমদানি ঘটবে। তখন দাম আরো কমে যাবে।
এদিকে গতকাল রাজশাহীতে পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ১৭০ থেকে ১৮০ এবং আমদানি করা বিদেশী পেঁয়াজ ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে দেশি ১৯০ থেকে ২শ’ এবং আমদানি করা বিদেশী ১৭০ থেকে ১৮০ টাকায়। এই অবস্থায় গতকাল সাহেব বাজারের পাইকারি ও খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতাদের প্রতিষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা মনিটরিং করেন। এদিকে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করায় ভোক্তাদের মাঝে স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে। তারা দর নিয়ন্ত্রনে বাজারে নিয়মিত প্রশাসনের মনিটরিং কামনা করেন।
এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে রাজশাহী জেলা বাজার মনিটরিং কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন বলেন, অভিযান চালানোর পর গতকাল থেকে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। পাইকারি বাজারে ক্রেতাও কমে গেছে। দর নিয়ন্ত্রনে প্রতিদিনই নগরীর বাজার গুলোতে অভিযান চলবে। কেউ অতি মুনাফার চেষ্টায় পেঁয়াজের দর বৃদ্ধি করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এব্যাপারে টিসিবি রাজশাহী আঞ্চলিক অফিস প্রধান প্রতাপ কুমার বলেন, দর নিয়ন্ত্রনে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে ঢাকার মত রাজশাহীতেও খোলা বাজারে ৪৫ টাকা কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রির প্রস্তুতি রয়েছে। আজ কার্গো বিমানে ঢাকায় পেঁয়াজ আসার কথা রয়েছে। বুধবার সকাল ১০টার আগে রাজশাহীতে পৌঁছুলে ওইদিন থেকেই ট্রাক সেলের মাধ্যমে নগরীর ৫টি পয়েন্টে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করা হবে। প্রতি ট্রাকে প্রতিদিন ১ হাজার কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হবে। এছাড়া বিভাগের অন্যান্য জেলা সদর গুলোতে ২টি করে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে।

SHARE