আজ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবি (সা.)

171

স্টাফ রিপোর্টার: আজ রোববার ১২ রবিউল আউয়াল পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নিব (সা.)। এ দিন আখেরী নবী হযরত মুহাম্মদ মোসত্মফা (সা.) এর জন্ম ও ওফাত দিবস। বিশ্বের মুসলিম সমপ্রদায়সহ শানিত্মকামী প্রত্যেক মানুষের কাছে দিনটি অত্যনত্ম তাৎপর্যপূর্ণ।
বিশ্বের অন্যান্য স’ানের মতো বাংলাদেশেও যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় দিবসটি উদযাপিত হবে। রাজশাহীতেও বিভিন্ন সংগঠন যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে এই দিনটি উদযাপন করবে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- মহানবী (সা.)-এর পূর্ণাঙ্গ জীবন নিয়ে আলোচনা, সমাবেশ, মিলাদ মাহফিল, মোনাজাত এবং ধর্মীয় শোভাযাত্রা।
পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবির তাৎপর্য তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। ঈদে মিলাদুন্নিব উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক এ উপলক্ষে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে। বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন, বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ও রেডিও এ উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে।
ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে রাজশাহীতেও ঈদে মিলাদুন্নবি পালনে এক সপ্তাহ আগ থেকেই ব্যাপক প্রস’তি গ্রহণ করা হয়। আজ সকালে বিভিন্ন মসজিদ ও সংগঠনের উদ্যোগে মহানগরীতে বিশাল জশনে জুলুস বের করা হবে। রাজশাহীর হযরত শাহ মখদুম (রহ.) দরগা শরীফে গিয়ে তা শেষ হবে। এসময় দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-সমৃদ্ধি এবং কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হবে।
নগরীর শিরোইল কলোনী বায়তুল মামুর জামে মসজিদ থেকে প্রতিবছরের মত এবারও শোভাযাত্রা বের করা হবে। ধর্মীয় শোভাযাত্রা বের করবে গাউছিয়া কমিটি মহানগর শাখা। সকাল সাড়ে ৮টায় শোভাযাত্রাটি শিরোইল কলোনী ৪ নম্বর গলির শেষ মাথায় বায়তুল মামুর জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে বের করা হবে।
শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মহানগরের দরগাপাড়া হযরত শাহ মখদুম (রহ.) এর মাজারে গিয়ে শেষ হবে। হযরত শাহ মখদুম রূপোশ (রহ.) দরগাহ শরীফে চাদর চড়ানোর পর পুনরায় বায়তুল মামুর জামে মসজিদ শিরোইল কলোনী ৪ নম্বর গলিতে জমায়েত হয়ে মিলাদ মাহফিল ও দরম্নদ সালাম ও কেয়াম হবে। পরে মুসলিম উম্মাহ এবং দেশ ও জাতির শানিত্ম কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করবেন মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ আতাউল মোসত্মফা কাদরী।
রাজশাহী গাউছিয়া কমিটি মহানগর শাখার সভাপতি সফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি জানান, ঈদে মিলাদুন্নবি (সাঃ) উপলক্ষে কয়েকদিন আগেই মসজিদের আশপাশের সড়ক সাজানো হয়েছে। লাল ও সবুজ পতাকা দিয়ে সাজানো হয়েছে শিরোইল কলোনী এলাকার ১, ২, ৩ ও ৪ নম্বর সড়কের চারপাশের বাড়িগুলোও। সুসজ্জিত তোরণ নির্মাণ হয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে এলাকার সড়কগুলোয় শোভা পাচ্ছে বর্ণিল আলোকসজ্জা।
এদিকে আজ সকাল ৯টায় খানকায়ে গাওসুল আজম গাওসিয়া, তালীমে কোরআন তামাউয়াফি মাদ্রাসা, ইস্কে নবী ভক্তদের উদ্যোগে মহানগরে পৃথক জশনে জুলুস বের করা হবে। মহানগরের সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে বাংলাদেশ সুফী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নূরানী আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হবে। রাজশাহীর কেন্দ্রীয় শাহ মখদুম (রহ.) দরগা মসজিদে সীরাতুন্নবি (সাঃ) উদযাপনের লক্ষ্যে বয়ান ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।
এছাড়া পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে শান্তি-শৃংখলা রক্ষা, জনস্বার্থ, জনশৃংখলা, সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা ও নির্বিঘ্নে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উদ্যাপন করার জন্য নগর এলাকায় সকল প্রকার অস্ত্র, আতশবাজি, পটকা ফুটানো, বিষ্ফোরক দ্রব্য বহন, সংরক্ষণ, ক্রয়-বিক্রয় নিষিদ্ধ করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে নগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস স্বাক্ষরিত গণামাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এতদ্বারা সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, আগামী ১০ নভেম্বর পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উদ্যাপিত হবে। এ উপলক্ষে রাজশাহী মহানগর এলাকায় জুশনে জুলুশ (শোভাযাত্রা), মিলাদ-ওয়াজ মাহফিল ও ধর্মীয় সভাসহ বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে রাজশাহী মহানগর এলাকায় শান্তি-শৃংখলা রক্ষা, জনস্বার্থ, জনশৃংখলা, সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা ও নির্বিঘ্নে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উদ্যাপন করার স্বার্থে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ আইন-১৯৯২ এর ২৬ (ঢ), ২৯ (ক), ২৯ (খ) ধারার অর্পিত ক্ষমতাবলে রাজশাহী মহানগর এলাকায় আগামী ১০/১১/২০১৯ তারিখ সকল প্রকার অস্ত্র, আতশবাজি, পটকা ফুটানো, বিষ্ফোরক দ্রব্য বহন, সংরক্ষণ, ক্রয়-বিক্রয় ও ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষণা করলাম। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

SHARE