বড় ভাইয়ের রডের আঘাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু

100

স্টাফ রিপোর্টার : নগরীতে বড় ভাইয়ের রডের আঘাতে গুরুতর আহত ছোট ভাই আশরাফুল খন্দকার (৪০) মারা গেছেন। গতকাল সোমবার ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় পুলিশ বড় ভাইকে নূর আলমকে (৪৩) গ্রেফতার করেছে। তারা দুই ভাই নগরীর সেখের চক এলাকার সানোয়ার হোসেনের ছেলে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আশরাফুল ও নূর আলম নগরীর শেখের চক এলাকায় তাদের মা ও বাবাকে নিয়ে থাকেন। তাদের বাবা প্যারালাইজড একজন রোগি। গত শনিবার রাতে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে নূরে আলম লোহার রড় দিয়ে আশরাফুলকে মাথায় আঘাত করেন। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। প্রতিবেশি ও স্বজনরা তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। গতকাল সোমবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি।
এ ঘটনায় নিহতের কন্যা জান্নাতি আন্নিকা বাদী হয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানায় হত্যা মামলা করলে পুলিশ নূরে আলমকে সোমবার বেলা ১১টায় সেখের চকের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।
বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারণচন্দ্র বর্মন জানান, পারিবারিক ও জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত শনিবার মাকে মারধর করেছিলো আশরাফুল। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বড় ভাই নূর আলম ছোট ভাই আশরাফুল খন্দকারকে লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এসময় তিনি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে যান। পরে পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশিরা তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সোমবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ তার বড় ভাইকে গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহতের কন্যা। নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। ওসি জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নূর আলম হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

SHARE