কেউ চা বিক্রি করতেন, কেউ কন্ডাক্টর- এই তারকাদের পেশা কী ছিল

অনলাইন ডেস্ক : বলিউডে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী রয়েছেন যারা তারকা পরিবারে জন্মগ্রহণ করার সুবাদে পারিবারিক ভাবেই অভিনয় জগতে এসেছেন। তাদেরকে কোনো কাঠখড় পোহাতে দেখা যায়নি। কারও বাবা প্রযোজক বা পুরোদস্তুর অভিনেতা।

তবে আজ এমন কয়েকজন অভিনেতাদের নিয়ে কথা বলবো যাদের কোনও গডফাদার ছিল না বলেই ধরে নেওয়া হয়। ক্যারিয়ারের শুরুতে কঠোর পরিশ্রম করে বলিউডে জায়গা করে নিতে হয়েছে। এদের মধ্যে অনেকেই রোজগারের জন্য একসময় সেলসম্যানের কাজও করেছেন।

তালিকায় যে নামগুলি রয়েছে:
অক্ষয় কুমার: অক্ষয় কুমার এই মুহূর্তে বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক প্রাপ্ত অভিনেতাদের মধ্যে একজন। তবে অভিনয় জীবন শুরুর আগে তিনি একেবারে ছোটখাটো কিছু কাজ করতেন। ক্যারিয়ারের শুরুতে গয়নার দোকানে কাজ করতেন। এরপর একটি হোটেলে খাবার পরিবেশনের কাজও করতেন।

আরও পড়ুনঃ   মেয়ের জন্য মাকে সম্মাননা, গর্বিত-আপ্লুত মিমি

আরশাদ ওয়ারসি: আরশাদ ওয়ারসি বিভিন্ন সিনেমায় কমেডি চরিত্রে অভিনয় করেন। মুন্না ভাইয়ের সার্কিট থেকে শুরু করে জলি এলএলবি সিনেমা দর্শকদের মাঝে জনপ্রিয়তা এনে দিয়েঝে। তবে তিনি একসময় সংসার চালানোর জন্য সেলসম্যান হিসেবে কাজ করেছেন।

বোমান ইরানি: বোমান ইরানির ছোটবেলা কেটেছে খুবই কষ্টে। তিনি মায়ের সঙ্গে একটি বেকারি দোকানে চা এবং কেক বিক্রি করতেন। এরপর মুম্বাইয়ের এক জনপ্রিয় ফটোগ্রাফারের কাছে কাজ করতেন। ছবি তুলে উপার্জন করতেন। তারপর তিনি অভিনয় জগতে পা রাখেন। এরপরে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি, নিজের অভিনয় দক্ষতায় দর্শকের মনে জায়গা করে নেন।

আরও পড়ুনঃ   কেমন ছিল নেহার অতীত জীবন

রাকেশ ওম প্রকাশ মেহেরা: বর্তমানে ইনি বলিউডের প্রখ্যাত পরিচালক। ‘রং দে বসন্তি’, ‘ভাগ মিলখা ভাগ’-সহ একাধিক ছবি পরিচালনা করেছেন তিনি। তবে সিনেমার জগতে আসার আগে তিনি চা বিক্রি করতেন। একসময় রোজগারের জন্য ভ্যাকিউম ক্লিনারের সংস্থায় কাজ করেছেন।

রজনীকান্ত: দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্তের ছোটবেলা বেশ কষ্টের। অভিনয় জগতে পা রাখার আগে বাস কন্ডাক্টর হিসেবে কাজ করতেন। তারপর তিনি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন। বর্তমানে সিনেমার দুনিয়ায় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক প্রাপকদের মধ্যে একজন তিনি।

অজিত কুমার: তামিল ইন্ডাস্ট্রির সুপারস্টার অজিত কুমারও রয়েছেন এই তালিকায়। তিনি অভিনয়ে আসার আগে জামাকাপড় বিক্রি করতেন। তার বন্ধুর কাপড়ের ব্যবসা ছিল। তিনি সেই ব্যবসায় সেলসের কাজ দেখতেন।