পাবনায় প্রকাশ্যে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, স্বামী গ্রেপ্তার

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার ঈশ্বরদীতে প্রকাশ্যে রাস্তার ওপর স্বামীর উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে রিনা (২৯) নামে ইপিজেড কারখানার এক নারী শ্রমিক খুন হয়েছেন। আজ রোববার সকালে উপজেলার পাকশীতে ঈশ্বরদী ইপিজেড মোড়সংলগ্ন পাকা সড়কে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ এলাকাবাসীর সহযোগিতায় স্বামী মিলন হোসেনকে (৩৬) আটক করেছে। ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত রিনা খাতুন ঈশ্বরদী ইপিজেডে ‘রেনেসাঁসা বারিন্দ লিমিটেড’ নামে একটি কারখানার অস্থায়ী শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।

স্থানীয়রা জানান, রিনা খাতুনের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। কয়েক বছর আগে স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় রিনা ছেলেকে নিয়ে আলাদা থাকা শুরু করেন। সম্প্রতি তিনি ঈশ্বরদী ইপিজেড মোড়ে বাঘইল ঠাকুরপাড়ায় একটি বাড়ি ভাড়া নেন। ইপিজেড কাছে হওয়ায় ভাড়া বাসা থেকেই রিনা খাতুন পায়ে হেঁটে কাজে যেতেন। এখানে মাঝেমধ্যে আসতেন স্বামী মিলন। তাঁদের মধ্যে এ সময় নানা বিষয় নিয়ে ঝগড়াও হতো।

আরও পড়ুনঃ   নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১৯ এবং মাদকদ্রব্য উদ্ধার

পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রুহুল আমিন বলেন, প্রতিদিনের মতো রিনা খাতুন রোববার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে বাসা থেকে হেঁটে ইপিজেডে যাচ্ছিলেন। এ সময় পেছন থেকে স্বামী মিলন তাঁর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ছুরি দিয়ে কোপাতে থাকেন। রিনা খাতুন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে মিলন পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু এলাকাবাসী দৌড়ে এসে তাঁকে ধরে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি চাকুসহ কিছু আলামত উদ্ধার করে। পরে তাঁকে ঈশ্বরদী থানায় পাঠায়।

আরও পড়ুনঃ   সরকারি কনডমের সরবরাহ বন্ধ, মার্কেটে দাম বেড়েছে দ্বিগুণ

ঈশ্বরদী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মিলন হত্যাকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে তাঁদের মধ্যে দীর্ঘদিনের মনোমালিন্য ও দ্বন্দ্বের কথা উল্লেখ করেছেন। রিনা খাতুনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।