প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের দায়ে তিন কিশোরকে ১০ বছরের সাজা

নাটোর জেলা প্রতিনিধি : নাটোরের বড়াইগ্রামে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের দায়ে তিন কিশোরকে ১০ বছরের আটকাদেশ দিয়েছেন শিশু আদালতের বিচারক। সোমবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে শিশু আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম এ রায় দেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি মো. আনিছুর রহমান।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- বড়াইগ্রামের নগর মৎসজীবী পাড়ার প্রয়াত জহুরুল ইসলামের ছেলে আকাশ ইসলাম (২১), সেকেন্দার আলীর ছেলে তুজাম দেওয়ান (২০) এবং শাহিদ আলীর ছেলে রানা (২০)।

আরও পড়ুনঃ   রাজশাহী পুলিশ লাইনস্ বধ্যভূমিতে পুলিশের আত্মত্যাগ ও বীরত্বগাথার ক্ষণ উদযাপন

মামলার বরাতে আনিসুর রহমান বলেন, ২০২০ সালের ২০ মার্চ দুপুরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ওই নারী (২৯) রাজেন্দ্রপুর গ্রামের খালের পাশে হাঁটছিলেন। এ সময় অভিযুক্তরা সেখানে মাছ ধরছিলেন। ওই নারীকে একা পেয়ে তারা গণধর্ষণ করে। এ সময় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়রা ওই নারীকে উদ্ধার করে বড়াইগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ঘটনার ২ দিন পর ২২ মার্চ নির্যাতিত ওই নারীর বড় ভাই বাদী হয়ে আকাশ ইসলাম, তুজাম দেওয়ান ও রানাকে অভিযুক্ত করে বড়াইগ্রাম থানায় মামলা করেন।

আরও পড়ুনঃ   অবৈধ সম্পদ : এস কে সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২ সেপ্টেম্বর

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক দিলীপ কুমার দাস ২০২০ সালের ২৩ জুন মামলার অভিযোগপত্র জমা দিলে সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে বিজ্ঞ বিচারক এ রায় দেন। ঘটনায় সময় অভিযুক্তদের বয়স ১৮ বছরের কম হওয়ায় শিশু আইনে তাদের বিচার করা হয়েছে বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের এই আইনজীবী।