খালেদার নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদ সভায় ১৭ এপ্রিল পালনের প্রয়োজন নেই সিদ্ধান্ত হয়েছিল

অনলাইন ডেস্ক : ২০০২ সালে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদের সভায় ১৭ এপ্রিলকে গুরুত্বপূর্ণ দিবস হিসেবে পালনের প্রয়োজন নেই বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

তথ্যপ্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত আজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্টে এ কথা উল্লেখ করে বলেন,‘ আজ ১৭ এপ্রিল, স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকার (মন্ত্রিপরিষদের) শপথ নেয়ার দিন। আজকে এই দিনে, এই মুহূর্তে মন্ত্রিপরিষদের সভায় অংশগ্রহণ করছি।’

আরও পড়ুনঃ   ডিবি পুলিশকে মারধর, দুই ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

তিনি বলেন, ‘আজকে অদ্ভুত একটি বিষয় জানলাম। একটি মিটিংয়ের দালিলিক প্রমাণ থেকে দেখা যাচ্ছে, ২০০২ সালে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদের সভায় ‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে নি¤œলিখিত দিবসগুলো পালনের প্রয়োজন নেই’- এই মর্মে এক প্রস্তাবনায় ‘১৭ এপ্রিল’ অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছিল। অর্থাৎ, ২০০২ সালে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদের সভায় ১৭ এপ্রিল একটি গুরুত্বপূর্ণ দিবস হিসেবে পালনের প্রয়োজন নেই বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।’

আরও পড়ুনঃ   ২০০ গাড়ি নিয়ে আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রায় এমপি নিখিল

চিন্তা করা যায়! স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকার (মন্ত্রিপরিষদের) শপথ নেয়ার দিন তাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়, পরে ভেবে দেখলাম যে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা ছিল যুদ্ধাপরাধী এবং রাজাকার গং। সেই মন্ত্রিপরিষদ যে ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস এবং ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস বাতিল করে দেয়নি, এই তো বেশি।