রক্ত গরম করে আইসিসির শাস্তির খড়গে হৃদয়

অনলাইন ডেস্ক : অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর আউট হওয়ার পরের বলেই বোল্ড হয়েছিলেন তাওহীদ হৃদয়। এরপরে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও আউট হলে প্রথম বারের মতো হ্যাটট্রিক করেন শ্রীলঙ্কান পেসার নুয়ান তুশারা। বাংলাদেশে হেরে যায় ম্যাচটি, হাতছাড়া হয় সিরিজও। তবে এসব কিছু ছাপিয়ে হৃদয়ের আউট হওয়ার পরের মুহূর্তই এখন আলোচনায়।

সে সময়ে রক্তগরম করে আইসিসির শাস্তির খড়গে পড়েছেন তিনি। গতকাল রবিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি জানিয়েছে, ‘আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে হৃদয়ের ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হলো। পাশাপাশি তার নামের পাশে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ করা হলো।’

আরও পড়ুনঃ   প্রোটিয়াদের ‘সর্বনিম্ন’ রানে আটকে দিলো বাংলাদেশ

গত পরশু টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে তুশারার বলে বোল্ড হওয়ার পরে লঙ্কানদের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়েছিলেন ২৩ বছর বয়সি ক্রিকেটার তাওহীদ হৃদয়। দাসুন শানাকাদের দিকে বেশ কয়েক বার তেড়েফুড়েও গিয়েছিলেন তিনি। আম্পায়ারসহ সতীর্থ সৌম্য সরকার ও তাইজুল ইসলাম হৃদয়কে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করেছিলেন। তবে কিছুতেই শান্ত হচ্ছিলেন না।

আরও পড়ুনঃ   হোয়াইটওয়াশ বাঁচানোর মিশন টাইগারদের

লঙ্কানদের থেকে কোনো কথা শুনেই হয়তো তিনি তেমনটি করেছিলেন বলে ধারণা করা হয়েছিল। তবে এখনো প্রকৃত ঘটনা জানা যায়নি। ঐ ঘটনায় ম্যাচ রেফারি অ্যান্ডি পাইক্রফটের দেওয়া শাস্তি মেনে নিয়ে নিজের অপরাধ স্বীকার করেছেন হৃদয়। এতে আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন হয়নি। এক বছরের জাতীয় দলের ক্যারিয়ারে এই প্রথম শাস্তি পেলেন হৃদয়।