বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন ‘নীতীশ কুমার’

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ ০ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অনলাইন ডেস্ক : বারবার নতুন নতুন দলের সাথে জোট গড়ে ভারতের রাজনীতিতে ‘‘পল্টু কুমার’’ নামে পরিচিতি পাওয়া বিহারের নেতা নীতীশ কুমার রেকর্ড নবমবারের মতো রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েছেন।

ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনীতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাথে জোট গড়ে সোমবার বিহারের নতুন সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন তিনি।

দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, বিজেপির সাথে অংশীদারত্ব গড়ে বিহারের নতুন সরকারের প্রধান হিসেবে নবমবারের মতো মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েছেন ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর প্ল্যাটফর্ম ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম নেতা নীতীশ কুমার। মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নেওয়ার আগে বিরোধীদের এই জোট থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন তিনি।

নীতীশের পাশাপাশি রাজ্য সরকারের মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিজেপি নেতা সম্রাট চৌধুরী, বিজয় সিনহা এবং অন্যান্যরা। এনডিটিভি লিখেছে, বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর পদে আসীন হওয়ার জন্য গত এক দশকে পাঁচবারের মতো রাজনৈতিক শিবির পাল্টেছেন নীতীশ। রাজনীতিতে এই ডিগবাজির কারণে ভারতে তিনি ‘‘পল্টু কুমার’’ নামেও পরিচিত।

নীতীশ কুমার ২০২২ সালে সর্বশেষ বিজেপির সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেছিলেন। গত কয়েকদিন ধরেই জল্পনা ছিল, আবার জোট বদল করতে পারেন বিহারের রাজনৈতিক দল জেডিইউর নেতা নীতীশ।

ওই বছর তিনি যে এনডিএ জোট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন এবং আরজেডি-কংগ্রেসসহ ১৯টি দলের সঙ্গে ‘‘মহাগঠবন্ধন’’ জোট তৈরি করেছিলেন, দেড় বছর কাটতে না কাটতেই আবার সেই জোট ভেঙে এনডিএ-তে ফিরে যাবেন। সেই জল্পনা সত্যি করেই রোববার রাজ্যপালের কাছে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেন নীতীশ।

লোকসভা নির্বাচনের আগে নীতীশের এই পক্ষ-বদল বিরোধী জোট ইন্ডিয়ার কাছে বড় ধাক্কা। ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম মুখ ছিলেন নীতীশ কুমার।

জোটের সূত্র বেঁধেছিলেন তিনিই। আসন ভাগাভাগি নিয়ে যখন জোটের ভেতরে ফাটল চওড়া হচ্ছে, সেই সময়ই লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে জোটই বদলে ফেললেন নীতীশ কুমার।

ইন্ডিয়া জোটের প্রথম কর্ণধার ছিলেন তিনিই। তাদের এই জোটের লক্ষ্য ছিল বিজেপিকে হারানো। কিন্তু সেই নীতীশই আবার বিজেপির সঙ্গে হাত মেলান। এই প্রসঙ্গে বিহারের এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমি একটা জোট তৈরি করার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু দেখলাম, কেউই কিছু করছে না।’’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন ‘নীতীশ কুমার’

আপডেট সময় : ১২:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক : বারবার নতুন নতুন দলের সাথে জোট গড়ে ভারতের রাজনীতিতে ‘‘পল্টু কুমার’’ নামে পরিচিতি পাওয়া বিহারের নেতা নীতীশ কুমার রেকর্ড নবমবারের মতো রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েছেন।

ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনীতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাথে জোট গড়ে সোমবার বিহারের নতুন সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন তিনি।

দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, বিজেপির সাথে অংশীদারত্ব গড়ে বিহারের নতুন সরকারের প্রধান হিসেবে নবমবারের মতো মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিয়েছেন ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর প্ল্যাটফর্ম ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম নেতা নীতীশ কুমার। মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নেওয়ার আগে বিরোধীদের এই জোট থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন তিনি।

নীতীশের পাশাপাশি রাজ্য সরকারের মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিজেপি নেতা সম্রাট চৌধুরী, বিজয় সিনহা এবং অন্যান্যরা। এনডিটিভি লিখেছে, বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর পদে আসীন হওয়ার জন্য গত এক দশকে পাঁচবারের মতো রাজনৈতিক শিবির পাল্টেছেন নীতীশ। রাজনীতিতে এই ডিগবাজির কারণে ভারতে তিনি ‘‘পল্টু কুমার’’ নামেও পরিচিত।

নীতীশ কুমার ২০২২ সালে সর্বশেষ বিজেপির সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেছিলেন। গত কয়েকদিন ধরেই জল্পনা ছিল, আবার জোট বদল করতে পারেন বিহারের রাজনৈতিক দল জেডিইউর নেতা নীতীশ।

ওই বছর তিনি যে এনডিএ জোট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন এবং আরজেডি-কংগ্রেসসহ ১৯টি দলের সঙ্গে ‘‘মহাগঠবন্ধন’’ জোট তৈরি করেছিলেন, দেড় বছর কাটতে না কাটতেই আবার সেই জোট ভেঙে এনডিএ-তে ফিরে যাবেন। সেই জল্পনা সত্যি করেই রোববার রাজ্যপালের কাছে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেন নীতীশ।

লোকসভা নির্বাচনের আগে নীতীশের এই পক্ষ-বদল বিরোধী জোট ইন্ডিয়ার কাছে বড় ধাক্কা। ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম মুখ ছিলেন নীতীশ কুমার।

জোটের সূত্র বেঁধেছিলেন তিনিই। আসন ভাগাভাগি নিয়ে যখন জোটের ভেতরে ফাটল চওড়া হচ্ছে, সেই সময়ই লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে জোটই বদলে ফেললেন নীতীশ কুমার।

ইন্ডিয়া জোটের প্রথম কর্ণধার ছিলেন তিনিই। তাদের এই জোটের লক্ষ্য ছিল বিজেপিকে হারানো। কিন্তু সেই নীতীশই আবার বিজেপির সঙ্গে হাত মেলান। এই প্রসঙ্গে বিহারের এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমি একটা জোট তৈরি করার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু দেখলাম, কেউই কিছু করছে না।’’