নওয়াজের হাফ-সেঞ্চুরিতে খুলনার সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৬০ রান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০১:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ ০ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তানী অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নওয়াজের হাফ-সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের নবম ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬০ রান করেছে খুলনা টাইগার্স। নওয়াজ ৩৪ বলে ৫৫ রান করেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ দিনের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারে রংপুরের স্পিনার মাহেদি হাসানের বলে খালি হাতে বিদায় নেন খুলনার অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়।
সতীর্থকে হারালেও মারমুখী মেজাজে ছিলেন আরেক ওপেনার ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন লুইস। আফগানিস্তানের আজমতুল্লাহ ওমরজাইর করা পঞ্চম ওভারে ২টি ছক্কা ও ১টি চারে ১৮ রান তুলেন লুইস। পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে মাহমুদুল হাসান জয়কে ৭ রানে শিকার করে খুলনা শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন মাহেদি।

এরপর আফিফ হোসেন ও লুইসকে আউট করে খুলনাকে চাপে ফেলেন পেসার হাসান মাহমুদ। আফিফকে ৪ ও লুইসকে ৩৭ রানে শিকার করেন হাসান। ২৫ বল খেলে ৩টি করে চার-ছক্কা মারেন লুইস।
৬৪ রানে ৪ উইকেট পতনের পর খুলনার হাল ধরেন শ্রীলংকার দাসুন শানাকা ও মোহাম্মদ নওয়াজ। ৫৩ বলে ৭৭ রানের জুটি গড়ে খুলনাকে লড়াকু সংগ্রহ এনে দেন তারা। ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬০ রানের পুঁজি পায় খুলনা।

শানাকা ৫টি চার ও ১টি ছক্কায় ৩৩ বলে ৪০ রানে আউট হলেও, ছক্কা মেরে ৩৩ বলে হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ন করেন নওয়াজ। ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৩৪ বলে ৫৫ রান করেন তিনি। রংপুরের হাসান ৩টি ও মাহেদি ২টি উইকেট নেন। সাকিব আল হাসান ৪ ওভারে ২১ রানে দিয়ে উইকেটশূণ্য ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নওয়াজের হাফ-সেঞ্চুরিতে খুলনার সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৬০ রান

আপডেট সময় : ০১:০১:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তানী অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নওয়াজের হাফ-সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের নবম ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬০ রান করেছে খুলনা টাইগার্স। নওয়াজ ৩৪ বলে ৫৫ রান করেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ দিনের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারে রংপুরের স্পিনার মাহেদি হাসানের বলে খালি হাতে বিদায় নেন খুলনার অধিনায়ক এনামুল হক বিজয়।
সতীর্থকে হারালেও মারমুখী মেজাজে ছিলেন আরেক ওপেনার ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন লুইস। আফগানিস্তানের আজমতুল্লাহ ওমরজাইর করা পঞ্চম ওভারে ২টি ছক্কা ও ১টি চারে ১৮ রান তুলেন লুইস। পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে মাহমুদুল হাসান জয়কে ৭ রানে শিকার করে খুলনা শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন মাহেদি।

এরপর আফিফ হোসেন ও লুইসকে আউট করে খুলনাকে চাপে ফেলেন পেসার হাসান মাহমুদ। আফিফকে ৪ ও লুইসকে ৩৭ রানে শিকার করেন হাসান। ২৫ বল খেলে ৩টি করে চার-ছক্কা মারেন লুইস।
৬৪ রানে ৪ উইকেট পতনের পর খুলনার হাল ধরেন শ্রীলংকার দাসুন শানাকা ও মোহাম্মদ নওয়াজ। ৫৩ বলে ৭৭ রানের জুটি গড়ে খুলনাকে লড়াকু সংগ্রহ এনে দেন তারা। ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬০ রানের পুঁজি পায় খুলনা।

শানাকা ৫টি চার ও ১টি ছক্কায় ৩৩ বলে ৪০ রানে আউট হলেও, ছক্কা মেরে ৩৩ বলে হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ন করেন নওয়াজ। ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৩৪ বলে ৫৫ রান করেন তিনি। রংপুরের হাসান ৩টি ও মাহেদি ২টি উইকেট নেন। সাকিব আল হাসান ৪ ওভারে ২১ রানে দিয়ে উইকেটশূণ্য ছিলেন।