সর্বশেষ ::
নারীর ক্ষমতায়নে পুনাককে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান ড. রেবেকা সুলতানার নাম থেকে স্বামীর চিহ্ন মুছে ফেললেন মাহি রাজশাহী ফটো জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন আরএমপি’র কমিশনারসহ ৪০০ জনকে পদক পরালেন প্রধানমন্ত্রী বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিল রাজপাড়া থানা পুলিশ রাজশাহী এডিটরস ফোরামের কমিটি গঠন আরটিজেএ নির্বাচন : সভাপতি মেহেদী, সাধারণ সম্পাদক রাব্বানী নির্বাচিত ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি রাজশাহীতে যাত্রা শুরু করছে শহীদ কামারুজ্জামান নার্সিং কলেজ শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যানে চালু হলো দৃষ্টিনন্দন ড্যান্সিং ফোয়ারা

যে কারণে বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না হৃতিক-দীপিকার ‘ফাইটার’

  • আপডেট সময় : ০১:৪৭:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ ৪ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্কঃ বলিউড তারকা দীপিকা পাড়ুকোন ও হৃতিক রোশনের ‘ফাইটার’ মুক্তি পাচ্ছে ২৫ জানুয়ারি। ভারতে মুক্তির ক্ষেত্রে সেন্সর বোর্ডের তোপের মুখে পড়ে ছবিটি। এবার পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলোতে নিষিদ্ধ করা হয় ‘ফাইটার’। বাংলাদেশেও মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ‘ফাইটারের’ কিন্তু হঠাৎ জানা গেল সিনেমাটি বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না।

মুক্তি না পাওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সিনেমাটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার ও পরিচালক অনন্য মামুন।

সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের আহ্বায়ক খোরশেদ আলম খসরু জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে সেন্সর বোর্ডে ‘ফাইটার’ ছবি দেখার সিডিউল রয়েছে। আজ সন্ধ্যায় সেন্সর পেলে ছবিটি শুধু ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত সিনেমা হলে চলতে পারে কিন্তু ভাষার মাসে এ সিনেমা চলবে না।

পরিষদের আহ্বায়ক আরও বলেন, ‘হিন্দি ছবি মুক্তি দিতে হলে সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের অনাপত্তিপত্র লাগে। বুধবার এফডিসিতে পরিষদের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮ সংগঠনের নেতাদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আমরা জানুয়ারি মাসে হিন্দি ছবির মুক্তির ব্যাপারে সম্মতি দিতে সম্মত হয়েছি। তবে ভাষার মাসে হিন্দি ছবির প্রদর্শনী যাতে না হয় সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রয়োজনে মার্চ মাসে হিন্দি ছবির প্রদর্শনী হতে পারে। সিদ্ধান্ত হয় যে, এ শর্তে মেনে ‘ফাইটার’ ছবির আমদানিকারক অনাপত্তিপত্র চাইলে দেওয়া হবে।’

অনন্য মামুন বলেন, ‘ফাইটার’ মুক্তির জন্য আমাদের সমস্ত প্রস্তুতি ছিল। দেশে মুক্তির জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনও পেয়েছে কিন্তু সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে দেশের কোনো সিনেমা হলে ‘ফাইটার’ প্রদর্শনীর ব্যাপারে আপত্তি জানায়। তবে তারা ছয় দিন সিনেমাটি প্রদর্শনীর কথা বলে। ফলে এ ছয় দিনের জন্য সিনেমাটি বাংলাদেশে চালাতে চাই না। তাই এটি মুক্তি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ সিনেমার জন্য এলসি, ভ্যাট, ট্যাক্সসহ সবই কিছুই নিয়মমাফিক ছিল। শুরু থেকে প্রচার প্রচারণার জন্য অনেক টাকা খরচ হয়েছে কিন্তু সিনেমাটি মুক্তি না দেওয়ায় আমরা মোটা অংকের ক্ষতির মধ্যে পড়লাম।’

নিউজটি শেয়ার করুন

যে কারণে বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না হৃতিক-দীপিকার ‘ফাইটার’

আপডেট সময় : ০১:৪৭:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪

অনলাইন ডেস্কঃ বলিউড তারকা দীপিকা পাড়ুকোন ও হৃতিক রোশনের ‘ফাইটার’ মুক্তি পাচ্ছে ২৫ জানুয়ারি। ভারতে মুক্তির ক্ষেত্রে সেন্সর বোর্ডের তোপের মুখে পড়ে ছবিটি। এবার পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলোতে নিষিদ্ধ করা হয় ‘ফাইটার’। বাংলাদেশেও মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ‘ফাইটারের’ কিন্তু হঠাৎ জানা গেল সিনেমাটি বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না।

মুক্তি না পাওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সিনেমাটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার ও পরিচালক অনন্য মামুন।

সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের আহ্বায়ক খোরশেদ আলম খসরু জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে সেন্সর বোর্ডে ‘ফাইটার’ ছবি দেখার সিডিউল রয়েছে। আজ সন্ধ্যায় সেন্সর পেলে ছবিটি শুধু ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত সিনেমা হলে চলতে পারে কিন্তু ভাষার মাসে এ সিনেমা চলবে না।

পরিষদের আহ্বায়ক আরও বলেন, ‘হিন্দি ছবি মুক্তি দিতে হলে সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের অনাপত্তিপত্র লাগে। বুধবার এফডিসিতে পরিষদের চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮ সংগঠনের নেতাদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আমরা জানুয়ারি মাসে হিন্দি ছবির মুক্তির ব্যাপারে সম্মতি দিতে সম্মত হয়েছি। তবে ভাষার মাসে হিন্দি ছবির প্রদর্শনী যাতে না হয় সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রয়োজনে মার্চ মাসে হিন্দি ছবির প্রদর্শনী হতে পারে। সিদ্ধান্ত হয় যে, এ শর্তে মেনে ‘ফাইটার’ ছবির আমদানিকারক অনাপত্তিপত্র চাইলে দেওয়া হবে।’

অনন্য মামুন বলেন, ‘ফাইটার’ মুক্তির জন্য আমাদের সমস্ত প্রস্তুতি ছিল। দেশে মুক্তির জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনও পেয়েছে কিন্তু সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে দেশের কোনো সিনেমা হলে ‘ফাইটার’ প্রদর্শনীর ব্যাপারে আপত্তি জানায়। তবে তারা ছয় দিন সিনেমাটি প্রদর্শনীর কথা বলে। ফলে এ ছয় দিনের জন্য সিনেমাটি বাংলাদেশে চালাতে চাই না। তাই এটি মুক্তি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ সিনেমার জন্য এলসি, ভ্যাট, ট্যাক্সসহ সবই কিছুই নিয়মমাফিক ছিল। শুরু থেকে প্রচার প্রচারণার জন্য অনেক টাকা খরচ হয়েছে কিন্তু সিনেমাটি মুক্তি না দেওয়ায় আমরা মোটা অংকের ক্ষতির মধ্যে পড়লাম।’