বাগমারায় অবৈধভাবে জমি জবর দখল করে একচালা টিনের ঘর নির্মাণের অভিযোগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৭:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪ ২ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

হেলাল উদ্দীন, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় জমি জবর দখল করে একচালা টিনের ঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আউচপাড়া ইউনিয়নের তোকিপুর গ্রামে। রাজশাহী কোর্ট, বাগমারা থানার লিখিত অভিযোগ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তোকিপুর গ্রামের মৃত বলিদ মন্ডলের পুত্র আঃ মালেক দিগর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত জমিজমা দীর্ঘদিন ভোগ দখল করে আসছেন। উক্ত জমিজমায় বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালা রোপণ এবং চাষাবাদ করছেন।
তোকিপুর মৌজায় ২৬৭ খতিয়ানে, ২৯৩৩ নং দাগে ১১ শতক জমিজমা একই গ্রামের আজিম উদ্দীন (৫৫), নমির উদ্দীন(৪৫) উভয়ের পিতা নছির উদ্দীন হঠাৎ বিবাদমান জমিটি তাঁদের বলে দাবী করেন ।
সূত্র জানায়, গত ১৮ই জানুয়ারি দুপুুরের দিকে আজিম উদ্দীন গংরা জমি দখলের প্রাঁয়তারা চালায়। ২০ জানুয়ারি বাহির থেকে বেশ কিছু লোকজন জড়ো করে দেশীয় অস্ত্রপাতি হাতে মহড়া দেয় এবং একচালা টিনের ঘর নির্মাণের মাধ্যমে জমিটি জবর দখল করে।
ভিকটিম আঃ মালেক নিরুপায় হয়ে ট্রিপল নাইনে ফোন দেন। পুলিশ আসার খবরে দখলকারীরা চম্পট দেয়। পরে আবারো সবাই একত্রিত হয়ে ঘর নির্মাণ করেন। আঃ মালেক এবং তাঁর অপর ভাই আব্দুস সালাম জানান, আমরা জীবিকার তাগিদে হাটগাঙ্গোপাড়া এলাকায় বসবাস করি । আমাদের পরিবারিক একটি অনুষ্ঠান নিয়ে আমরা শনিবার ব্যস্ত ছিলাম। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে, এই ফাঁকে বিবাদীরা প্রায় শতাধিক লোকজন জড়ো করে আমাদের সম্পত্তি দখল করেছে। এমন কী জমিতে রোপণকৃত বিভিন্ন প্রজাতির শাক সবজি টেনে তুলে নষ্ট করে ফেলে।
সূত্র আরও জানায়, প্রতিপক্ষরা অনবরত ভয়ভীতি, মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো এবং এমন কী প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি, ধামকি অব্যাহত রেখেছে। ভিকটিম সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করে দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবী জানান।
সরজমিন সংবাদকর্মীরা শনিবার বিকেল পাঁচটার দিকে আজিম উদ্দীন এবং নমির উদ্দীনের কাছে জমির দলিল দস্তাবেজের ফটোকপি দেখতে চাইলে তাঁরা দেখাতে পারেননি।
(২০ জানুয়ারি/২৪) তোকিপুর গ্রামের মৃত বলিদ মন্ডলের পুত্র আঃ মালেক বাদী হয়ে একই গ্রামের নছিরের পুত্র আজিম উদ্দীনকে প্রধান আসামী করে বারো জনের নামে বাগমারা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মুঠোফোনে বাগমারা থানার উপ-পরিদর্শক (আইও) জয়দেব কুমার অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বাগমারায় অবৈধভাবে জমি জবর দখল করে একচালা টিনের ঘর নির্মাণের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০১:৩৭:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪

হেলাল উদ্দীন, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় জমি জবর দখল করে একচালা টিনের ঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আউচপাড়া ইউনিয়নের তোকিপুর গ্রামে। রাজশাহী কোর্ট, বাগমারা থানার লিখিত অভিযোগ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তোকিপুর গ্রামের মৃত বলিদ মন্ডলের পুত্র আঃ মালেক দিগর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত জমিজমা দীর্ঘদিন ভোগ দখল করে আসছেন। উক্ত জমিজমায় বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালা রোপণ এবং চাষাবাদ করছেন।
তোকিপুর মৌজায় ২৬৭ খতিয়ানে, ২৯৩৩ নং দাগে ১১ শতক জমিজমা একই গ্রামের আজিম উদ্দীন (৫৫), নমির উদ্দীন(৪৫) উভয়ের পিতা নছির উদ্দীন হঠাৎ বিবাদমান জমিটি তাঁদের বলে দাবী করেন ।
সূত্র জানায়, গত ১৮ই জানুয়ারি দুপুুরের দিকে আজিম উদ্দীন গংরা জমি দখলের প্রাঁয়তারা চালায়। ২০ জানুয়ারি বাহির থেকে বেশ কিছু লোকজন জড়ো করে দেশীয় অস্ত্রপাতি হাতে মহড়া দেয় এবং একচালা টিনের ঘর নির্মাণের মাধ্যমে জমিটি জবর দখল করে।
ভিকটিম আঃ মালেক নিরুপায় হয়ে ট্রিপল নাইনে ফোন দেন। পুলিশ আসার খবরে দখলকারীরা চম্পট দেয়। পরে আবারো সবাই একত্রিত হয়ে ঘর নির্মাণ করেন। আঃ মালেক এবং তাঁর অপর ভাই আব্দুস সালাম জানান, আমরা জীবিকার তাগিদে হাটগাঙ্গোপাড়া এলাকায় বসবাস করি । আমাদের পরিবারিক একটি অনুষ্ঠান নিয়ে আমরা শনিবার ব্যস্ত ছিলাম। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে, এই ফাঁকে বিবাদীরা প্রায় শতাধিক লোকজন জড়ো করে আমাদের সম্পত্তি দখল করেছে। এমন কী জমিতে রোপণকৃত বিভিন্ন প্রজাতির শাক সবজি টেনে তুলে নষ্ট করে ফেলে।
সূত্র আরও জানায়, প্রতিপক্ষরা অনবরত ভয়ভীতি, মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো এবং এমন কী প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি, ধামকি অব্যাহত রেখেছে। ভিকটিম সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করে দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবী জানান।
সরজমিন সংবাদকর্মীরা শনিবার বিকেল পাঁচটার দিকে আজিম উদ্দীন এবং নমির উদ্দীনের কাছে জমির দলিল দস্তাবেজের ফটোকপি দেখতে চাইলে তাঁরা দেখাতে পারেননি।
(২০ জানুয়ারি/২৪) তোকিপুর গ্রামের মৃত বলিদ মন্ডলের পুত্র আঃ মালেক বাদী হয়ে একই গ্রামের নছিরের পুত্র আজিম উদ্দীনকে প্রধান আসামী করে বারো জনের নামে বাগমারা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মুঠোফোনে বাগমারা থানার উপ-পরিদর্শক (আইও) জয়দেব কুমার অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।