শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ভ্রাম্যমাণ দোকানে পোশাক কেনা-বেচার ধুম

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৮:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪ ০ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্টাফ রিপোর্টার: উত্তরের হিমেল বাতাস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদে বিপর্যস্ত জনজীবন। জেঁকে বসা শীতে উষ্ণতা ছড়াতে নিম্নবৃত্ত মানুষের ভরসা ভ্রাম্যমান পোশাকের দোকান। স্বল্প মূল্যে শীতের গরম কাপড় কিনতে ভিড় বেড়েছে ফুটপাতের এসব ভ্রাম্যমান দোকানে।

সরেজমিনে নগরী ঘুরে দেখা যায়, সাহেববাজার, কোর্টবাজার, উপশহর, লক্ষ্মীপুর, বিনোদপুর, নওদাপাড়া, শিরোইলসহ গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে পরসা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। হাঁকডাক আর দর-দামে জমে উঠছে কেনাকাটা।

নগরীর সাহেববাজার এলাকায় গরম কাপড় ক্রয় করতে আসা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জুয়েল হাসান জানান, গত কয়েকদিন ধরে খুব বেশি ঠান্ডা পড়েছে। তাই গরম কাপড় কিনতে এখানে এসেছি। এখানে অনেকগুলো গরম কাপড়ের দোকান বসেছে। পছন্দ মতো কাপড় স্বল্প মূল্যে এখানে পাওয়া যাচ্ছে।

পরিবার নিয়ে শীতের কাপড় কিনতে গণকপাড়ায় এসেছিলেন রুহি আক্তার ও সেলিম হোসেন দম্পত্তি। তারা জানান, এখানে পোশাকের দাম অন্য জায়গার তুলনায় কিছুটা কম। তাই এখানে এসেছেন। দুই বাচ্চার জন্য পোশাক কিনবেন। বড়দের পোশাকের চেয়ে শিশুদের পোশাকের দাম তুলনামূলক কম বলে জানান তিনি।
বিক্রেতারা বলছেন, শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার বেচাকেনা আগের তুলনায় অনেকটা বেড়েছে। আগে তেমন বেচাবিক্রিই ছিলো না।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ভ্রাম্যমাণ দোকানে পোশাক কেনা-বেচার ধুম

আপডেট সময় : ০৬:৫৮:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার: উত্তরের হিমেল বাতাস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদে বিপর্যস্ত জনজীবন। জেঁকে বসা শীতে উষ্ণতা ছড়াতে নিম্নবৃত্ত মানুষের ভরসা ভ্রাম্যমান পোশাকের দোকান। স্বল্প মূল্যে শীতের গরম কাপড় কিনতে ভিড় বেড়েছে ফুটপাতের এসব ভ্রাম্যমান দোকানে।

সরেজমিনে নগরী ঘুরে দেখা যায়, সাহেববাজার, কোর্টবাজার, উপশহর, লক্ষ্মীপুর, বিনোদপুর, নওদাপাড়া, শিরোইলসহ গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে পরসা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। হাঁকডাক আর দর-দামে জমে উঠছে কেনাকাটা।

নগরীর সাহেববাজার এলাকায় গরম কাপড় ক্রয় করতে আসা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জুয়েল হাসান জানান, গত কয়েকদিন ধরে খুব বেশি ঠান্ডা পড়েছে। তাই গরম কাপড় কিনতে এখানে এসেছি। এখানে অনেকগুলো গরম কাপড়ের দোকান বসেছে। পছন্দ মতো কাপড় স্বল্প মূল্যে এখানে পাওয়া যাচ্ছে।

পরিবার নিয়ে শীতের কাপড় কিনতে গণকপাড়ায় এসেছিলেন রুহি আক্তার ও সেলিম হোসেন দম্পত্তি। তারা জানান, এখানে পোশাকের দাম অন্য জায়গার তুলনায় কিছুটা কম। তাই এখানে এসেছেন। দুই বাচ্চার জন্য পোশাক কিনবেন। বড়দের পোশাকের চেয়ে শিশুদের পোশাকের দাম তুলনামূলক কম বলে জানান তিনি।
বিক্রেতারা বলছেন, শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার বেচাকেনা আগের তুলনায় অনেকটা বেড়েছে। আগে তেমন বেচাবিক্রিই ছিলো না।