সাংবাদিকরাই আমাদের সিসি ক্যামেরা : ইসি রাশেদা

  • আপডেট সময় : ০৯:২৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ ২ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাংবাদিকদের সিসি ক্যামেরা বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

শনিবার (৩০ডিসেম্বর) দুপুরে নীলফামারী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার কারণে আমরা কেন্দ্রগুলোতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করতে পারিনি। এক্ষেত্রে আমরা সাংবাদিকদের ওপর নির্ভর করছি। সাংবাদিকরা ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার কাজ করবেন।

এসময় কমিশনার বলেন, সাংবাদিকরা ভোটেকেন্দ্র থেকে লাইভ সম্প্রচার করতে পারবে তবে এক্ষেত্রে যেন ভোট কার্যক্রমে কোনো ক্ষতি না হয় সেটি বিবেচনায় রাখতে হবে। ভোটের পরিবেশ বজায় রাখতে ভোট কেন্দ্রে এক সঙ্গে দুইজন সাংবাদিকের বেশি দায়িত্ব পালন করতে কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার অনুমতি লাগবে না। শুধু অবগত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

রাশেদা সুলতানা বলেন, ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে। আমরা ইতোমধ্যে সে পরিবেশ তৈরি করেছি। সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করার জন্য আমরা প্রস্তুত আছি।

মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা পঙ্কজ ঘোষের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আবু জাফর, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার গোলাম সবুর, জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এম রাশেদুল হকসহ সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

সাংবাদিকরাই আমাদের সিসি ক্যামেরা : ইসি রাশেদা

আপডেট সময় : ০৯:২৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাংবাদিকদের সিসি ক্যামেরা বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

শনিবার (৩০ডিসেম্বর) দুপুরে নীলফামারী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার কারণে আমরা কেন্দ্রগুলোতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করতে পারিনি। এক্ষেত্রে আমরা সাংবাদিকদের ওপর নির্ভর করছি। সাংবাদিকরা ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার কাজ করবেন।

এসময় কমিশনার বলেন, সাংবাদিকরা ভোটেকেন্দ্র থেকে লাইভ সম্প্রচার করতে পারবে তবে এক্ষেত্রে যেন ভোট কার্যক্রমে কোনো ক্ষতি না হয় সেটি বিবেচনায় রাখতে হবে। ভোটের পরিবেশ বজায় রাখতে ভোট কেন্দ্রে এক সঙ্গে দুইজন সাংবাদিকের বেশি দায়িত্ব পালন করতে কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার অনুমতি লাগবে না। শুধু অবগত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

রাশেদা সুলতানা বলেন, ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে। আমরা ইতোমধ্যে সে পরিবেশ তৈরি করেছি। সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করার জন্য আমরা প্রস্তুত আছি।

মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা পঙ্কজ ঘোষের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আবু জাফর, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার গোলাম সবুর, জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এম রাশেদুল হকসহ সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।