ভোট দিতে বাধা দিলে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিতে হবে: লিটন

  • আপডেট সময় : ০৫:২২:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ ১ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, আগামী ৭ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনের দিন কেউ ভোট দিতে বাধা দিলে তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করতে হবে। রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে দলের প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদকে বিজয়ী করার লক্ষে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত এক নির্বাচনী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেছেন।

শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে পবার নওহাটা গরুর হাট সংলগ্ন মাঠে এই নির্বাচনী সভার আয়োজন করা হয়। সভায় আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতের মুখে ছাই দেওয়ার জন্য এই নির্বাচনী সভায় হাজার হাজার মানুষ এসেছেন। ৭ জানুয়ারি সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে যাবেন। ৭ জানুয়ারি কেউ ভোট প্রদানে বাধা দিতে আসলে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের নিকট সোর্পদ করতে হবে।’

রাজশাহী সিটি মেয়র লিটন বলেন, ‘যখন নির্বাচন আসে তখনই বিএনপি জামায়াত-নির্বাচনে অংশ নিতে চায় না। তারা জনগণের রায়ের মুখোমুখী হতে ভয় পায়, সেকারণে তারা নির্বাচনে অংশ নেয় না। তারা বলার মতো কোন ইতিবাচক কাজ করেনি। বিধায় তারা নির্বাচনে না এসে নির্বাচনে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। তারা বিদেশীদের কাছে বলতে চায়, ‘এই নির্বাচনে জনগণ অংশ নেয়নি, ভোট দিতে আসেনি, কাজেই এই নির্বাচনের রায় মেনে নেওয়া যায় না।’

নির্বাচনী সভার প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার সংসদ সদস্য প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদ। পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী নির্বাচনী সভায় সভাপতিত্ব করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নওহাটা পৌরসভার মেয়র হাফিজুর রহমান এই নির্বাচনী সভা পরিচালনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ভোট দিতে বাধা দিলে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিতে হবে: লিটন

আপডেট সময় : ০৫:২২:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, আগামী ৭ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনের দিন কেউ ভোট দিতে বাধা দিলে তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করতে হবে। রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে দলের প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদকে বিজয়ী করার লক্ষে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত এক নির্বাচনী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেছেন।

শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে পবার নওহাটা গরুর হাট সংলগ্ন মাঠে এই নির্বাচনী সভার আয়োজন করা হয়। সভায় আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতের মুখে ছাই দেওয়ার জন্য এই নির্বাচনী সভায় হাজার হাজার মানুষ এসেছেন। ৭ জানুয়ারি সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে যাবেন। ৭ জানুয়ারি কেউ ভোট প্রদানে বাধা দিতে আসলে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের নিকট সোর্পদ করতে হবে।’

রাজশাহী সিটি মেয়র লিটন বলেন, ‘যখন নির্বাচন আসে তখনই বিএনপি জামায়াত-নির্বাচনে অংশ নিতে চায় না। তারা জনগণের রায়ের মুখোমুখী হতে ভয় পায়, সেকারণে তারা নির্বাচনে অংশ নেয় না। তারা বলার মতো কোন ইতিবাচক কাজ করেনি। বিধায় তারা নির্বাচনে না এসে নির্বাচনে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। তারা বিদেশীদের কাছে বলতে চায়, ‘এই নির্বাচনে জনগণ অংশ নেয়নি, ভোট দিতে আসেনি, কাজেই এই নির্বাচনের রায় মেনে নেওয়া যায় না।’

নির্বাচনী সভার প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার সংসদ সদস্য প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদ। পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী নির্বাচনী সভায় সভাপতিত্ব করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নওহাটা পৌরসভার মেয়র হাফিজুর রহমান এই নির্বাচনী সভা পরিচালনা করেন।