নগরীতে বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালন

115

স্টাফ রিপোর্টার : ‘সহায়ক প্রযুক্তির ব্যবহার, অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তির অধিকার’ এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে সারা বিশ্বের ন্যায় রাজশাহীতেও নানা আয়োজনে ১২তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার সকালে নগরীর সিএন্ডবি মোড় থেকে জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয় ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের আয়োজনে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শিশু একাডেমিতে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে একাডেমির হলরুমে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক রাশেদুল কবীর। প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক এস এম আব্দুল কাদের। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সহকারী পুলিশ সুপার সুমন দেব, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের রেজিস্ট্রার রাসেউল কবীর, বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদ রাজশাহী শাখার সদস্য মোজাম্মেল হক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (জেনারেল) আবু হায়াত মোহাম্মদ রহমতুল্লাহ ও জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা শরীয়তুল্লাহ। এছাড়াও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল ফিরোজসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি ও অটিজম শিশুরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথি তার বক্তৃতায় বলেন, অটিজম শিশু ও ওই ধরনের জনগোষ্ঠি সম্পর্কে সাধারণ জনগণ ও অভিভাবকদের মধ্যে ভ্রান্ত ধারণা ও কুসংস্কার রয়েছে। এই কুসংস্কার দূর করে অভিভাবকসহ জনগণকে অটিজম জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করতে হবে। সেইসাথে অটিজম সকল শিশুকে জনসম্পদে পরিণত করে দেশের উন্নয়নের কাজে সম্পৃক্ত করেতে হবে। তিনি আরো বলেন, অটিজম কিংবা প্রতিবন্ধী শিশুরা আজ আর পরিবার বা দেশের বোঝা নয়। তারা লেখাপড়া থেকে শুরু করে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সফলতার স্বাক্ষর রাখছে। অবহেলা না করে এই ধরনের শিশু ও জনগোষ্ঠীকে সহায়তা ও ভালবাসা দিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উপস্থিত জনগণ ও অভিভাবকদের আহ্বান জানান জেলা প্রশাসক। আলোচনা শেষে অটিজম ও অন্যান্য শিশুদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় : রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডা. মাসুম হাবিব বলেছেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্নদের এগিয়ে নিতে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি পরিপূর্ণ সাইকিয়াট্রি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হবে। পরবর্তীতে বিভাগটিকে একটি ইনস্টিটিউটে পরিণত করা হবে। এতে করে অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্নদের এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে।
গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে ‘সহায়ক প্রযুক্তির ব্যবহার, অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্নদের অধিকার’ শীর্ষক প্রদিপাদ্যে ১২তম ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রামেবির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর এসএমএ হুরাইরার সভাপতিত্বে সেকশন অফিসার জামাল উদ্দীনের সঞ্চলনায় প্রধান আলোচক ছিলেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের সাইকিয়াট্রি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন হোসাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী উপাধ্যক্ষ প্রফেসর বুলবুল হাসান। এ সময় অস্থায়ী কার্যালয়ে নীল বাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। সভায় রামেবির অধিভুক্ত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ, ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ, বারিন্দ মেডিকেল কলেজ, শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজ, রাজশাহী নার্সিং কলেজ, ডায়াবেটিক এসোসিয়েশন নার্সিং কলেজ, ইসলামী ব্যাংক নার্সিং কলেজ, উদয়ন নার্সিং কলেজ, মির্জা নার্সিং কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং রামেবি’র সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা’ দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায় বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে ফিজিক্যাল চ্যালেঞ্জ ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মানববন্ধন পালন করা হয়।
এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সমাজকর্ম বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ছাদিকুল আরেফিন মাতিন বলেন, আজকের এই দিনটি বিশ্বব্যাপী বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে, অটিজমে আক্রান্তদের আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ করে দিলে তারা সমাজের জন্য ভাল কিছু করতে পারবে। তাদের আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ করে দিয়ে সমাজের মূল ধারায় ফিরে আনতে হবে।
সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবিরের সঞ্চালনায় ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান সোহেল বলেন, প্রতিবন্ধীরাও আমাদের সমাজের অংশ। তাদেরকে বিশেষ সুযোগ সুবিধা দিলে তারাও সমাজের জন্য ভাল কাজ করতে পারবে।
ফাউন্ডেশনের সভাপতি শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এসময় সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক রুবেল হোসেনসহ শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
জাতিসংঘের উদ্যোগে ২০০৭ সাল থেকে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। সেই প্রেক্ষিতেই ১২তম ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা’ দিবস পালন করেছে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
শাহ মখদুম নার্সি ইনস্টিটিউট : বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে নগরীর শাহ্ মখদুম নার্সিং ইনস্টিটিউট। এ উপলক্ষে গতকাল সকালে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ মনোয়ারা খাতুনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুজ্জামান স্বাধীন, উপ-পরিচালক আসমা উল হুসনা, শিক্ষিকা মেহেরুন নেসা, মীম খাতুন শিক্ষক মফিজুল ইসলাম প্রমুখ।

SHARE