অর্থনৈতিক সংস্কার বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে পারে : বিশ্বব্যাংক

225

ঢাকা, ২ অক্টোবর, ২০১৮ (বাসস) : আজ প্রকাশিত বিশ্ব ব্যাংকের (ডব্লিউবি) এক প্রতিবেদনে বলা হয়, উন্নয়নশীল বিশ্বের সর্বাপেক্ষা অগ্রসরমান অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতি অন্যতম এবং অর্থনৈতিক সংস্কার কাজ বাস্তবায়িত হলে এখানকার প্রবৃদ্ধি আরো দ্রুততর হবে।
সর্বশেষ ‘বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট আপডেট : পাওয়ারিং দ্য ইকোনোমি ইফিসিয়েন্টলি’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবল অভ্যন্তরীণ চাহিদা এবং কাঠামোগত পরিবর্তনের প্রেক্ষিতে এখানে প্রবৃদ্ধি স্থিতিশীল থাকবে, তবে আত্মপ্রসাদের কোন সুযোগ নেই।
প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবৃদ্ধির প্রত্যাশা পূরণ করতে হলে বেসরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধি, রফতানিতে বৈচিত্র আনা এবং মানবসম্পদ গড়ে তোলার মাধ্যমে বাংলাদেশের আরো বেশি ভাল কর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রয়োজন, দেশটিতে ব্যবসায় সহজকরণ, বড় প্রকল্পগুলো দ্রুত সম্পন্নকরণ, অর্থনৈতিক সেক্টরের ব্যবস্থাপনায় উন্নয়ন এবং নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহ নিশ্চিত করা আবশ্যক।
এতে বলা হয়, দেশটির রফতানি ও রেমিটেন্স প্রবৃদ্ধি আরো টেকসই করা গুরুত্বপূর্ণ। তাছাড়া অবকাঠামো, নগর ব্যবস্থাপনা ও পরিবেশ সংরক্ষণের ওপরও জোর দিতে হবে।
প্রতিবেদনে ৭.৮ শতাংশ জিডিপির লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৭ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের ভবিষ্যদ্বানী করেছে বিশ্ব ব্যাংক। এটি এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের ৭.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের ভবিষ্যদ্বানীর চেয়েও কম।
বিশ্ব ব্যাংক কান্ট্রি ডিরেক্টর ফর বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপাল- কিমিয়াও ফ্যান বলেন, দারিদ্র্য বিমোচনে এবং নাগরিকদের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে তাৎপর্যপূর্ণ অগ্রগতি অর্জনকারী দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ বিশ্বের সর্বাপেক্ষা অগ্রসরমান অর্থনীতির ১০টি দেশের মধ্যে অন্যতম এবং মানবসম্পদের উন্নয়নে দেশটি যথেষ্ট অগ্রগতি অর্জন করেছে।

SHARE