পারলেন না সাকিব, হারলো হায়দরাবাদ

93

গণধ্বনি ডেস্ক : শেষ ওভারে জয়ের জন্য কলকাতার নাইট রাইডার্সের দরকার ছিল ১৩ রান। ব্যাটিংয়ে তখন ১৮ বলে ৪৮ করা অ্যান্ড্রো রাসেল। আর বোলিংয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সাকিব। প্রথম বলটি রাসেল ব্যাট লাগাতে পারেননি।
তবে, আম্পায়ার ওয়াইডের সংকেত দেওয়ায় সাবিকের ভালো ডেলিভারিতেও একটি রান তুলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স। পরে বলে কোনো রকমে বল ব্যাটে লাগিয়ে প্রান্ত বদল করেন রাসেল। এতে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ সমর্থকদের স্বস্তি ফিরলেও মুহূর্তে তা হতাশায় রূপ নেয়। ব্যাটিংয়ে থাকা সাবমান গিল ছক্কা হাঁকিয়ে বসেন। ফলে সমীকরণ তখন ৪ বলে ৫ রান। পরের বলটি ডট। কিন্তু চতুর্থ বলটি আবারও গ্যালারিতে পাঠিয়ে কলকাতার জয় এনে দেন গিল। তবে হায়দরাবাদের ক্ষতির যা তা হয়েছে, সাবিক বোলিংয়ে আসার আগেই। ইনিংসের ১৮ ও ১৯তম ওভারে যে ৪২ রান দেন দুই পেসার সন্দ্বীপ শর্মা ও ভুবনেশ্বর কুমার। আর ঝড়টা তোলেন মূলত রাসেল। মূলত ম্যাচটি এখানে শেষ হয়ে যায়। পরে চেষ্টা করেও সাকিব দলকে জয় এনে দিতে পারেননি।

এর আগে, এবারের আইপিএলের নিজেদের প্রথম ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ১৮২ রানের টার্গেট দেয় সাকিব আল হাসানের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে রবিবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ডেভিড ওয়ার্নারের অর্ধশতকের ওপর ভর করে ১৮১ রান সংগ্রহ করে হায়দরাবাদ।

এদিকে, হায়দরাবাদের একাদশে জায়গা ধরে রেখেছেন এবারের আইপিএলে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। বিদেশিদের কোটায় তিনি ছাড়াও রয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার, জনি বেয়ারস্টো ও রশিদ খান। তবে প্রথম ম্যাচে ব্যাট করার সুযোগ হয়নি সাকিবের। এদিন উদ্বোধনী জুটিতেই ১১৮ রান যোগ করেন ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো। ৩৫ বলে ৩৯ রান করে বেয়ারস্টো ফিরলেও মারকাটিং ব্যাটিংয়ে ৫৩ বলে ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার। দলীয় ১৪৪ রানে ওয়ার্নারের বিদায়ের পর দ্রুত ইউসুফ পাঠান ফিরে গেলেও ২৪ বলে ৪০ রানে অপরাজিত থেকে দলকে ১৮১ রানের বড় সংগ্রহ এনে দেন বিজয় সঙ্কর।

প্রসঙ্গত, ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না হায়দরাবাদের নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তার পরিবর্তে নেতৃত্বের ভার উঠেছে ভারতীয় পেসার ভুবনেশ্বর কুমারের কাঁধে।

SHARE