ব্রিগেডিয়ার শামীম আহমেদের মা‘য়ের জানাযায় অংশ নিলেন রাসিক মেয়র লিটন

97

স্টাফ রিপোর্টার : মহানগরীর তেরখাদিয়া উত্তরপাড়া নিবাসী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম আহমেদের মাতা এবং আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম তাজুল ইসলাম মোহাম্মদ ফারুকের ছোট খালা হালিমা বানু এর জানাযা নামাজ সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুমা আমবাগান মৎস ভবন প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় জানাযা নামাজে অংশ নেন সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান হালিমা বানু। আজ বাদ জুমা রাজশাহী সেনানিবাসে মরহুমার প্রথম জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর আমবাগান মৎস ভবন প্রাঙ্গনে দ্বিতীয় জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এ জানাযা নামাজে অংশ সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। জানাযা নামাজে অন্যদের মধ্যে মহানগর আওয়ামী লীগের ডাবলু সরকারসহ মরহুমার আত্মীয়স্বজনরা অংশ নেন। পরে হেতেমখাঁ গোরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। অন্যদিকে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম আহমেদের মাতা হালিমা বানুর মৃত্যুতের গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। শোক বার্তায় মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোক সন্তোপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনাও জ্ঞাপন করেন মেয়র। অবাধ,নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠভাবে ভোটারধিকার প্রয়োগে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা শিবগঞ্জ উপজেলা শিবগঞ্জ(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধি: পঞ্চম উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপে আগামী ২৪মার্চ শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।এ নির্বাচন উপলক্ষে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সারা উপজেলাকে নিরাপত্তার চাদরের ব্যবস্থা করা হয়েছে।।উপজেলা সহকারী রির্টার্নিং অফিসার আবু রায়হান কুদ্দুস জানান শিবগঞ্জ উপজেলায় ১শ ৬৬টি ভোটকেন্দ্রের জন্য নির্বাচনী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে ১শ ৬৬জন প্রিজাইডিং অফিসার,১০৩২জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ২০৬৪জন পুলিং এজেন্ট নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া অতিরিক্ত ৫জন করে প্রিজাইডিং ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ শিকদার মোহাম্মদ মশিউর রহমান জানান,জনগণ যাতে নির্বিঘ্নে নিরাপত্তার মাধ্যমে নিজেদের ভোটারধিকার প্রয়োগ করতে পারেন সেজন্য শিবগঞ্জ থানা পুলিশের পক্ষ থেকে যাবতীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী রওশন ইসলাম জানান নিরাপত্তার মাধ্যমে ভোটারদের ভোটারধিকার ওনির্বাচনে দায়িত্বরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী নিরাপত্তার ব্যাপারে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। তিনি জানান, নির্বাচনে সারা উপজেলাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা হয়েছে।কঠোর নিরাপত্তার জন্য ১৮জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ১জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট,৬প্লাটুন বিজিবি, ৪৫৪ জন পুলিশ ও ১০/১৫জন করে র‌্যাবের ৫/৬টহল দল থাকবে। তাছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রের জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যাক পুরুষ ও মহিলা আনসার ভিডিপি নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো জানানা,সকাল ৭টার মধ্যে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়ী প্রতিটি কেন্দ্রে পৌঁছবে এবং প্রতিজন প্রিজাইডিং অফিসার সহ সকলে উপস্থিত আছেন কিনা এবং সম্পূর্ন ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স ঠিকমত দেখাতে ব্যর্থ হলে তৎক্ষনাত প্রিজাইডিং অফিসার গ্রেফতার হবে এবং তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

SHARE