রাজশাহীতে যথাযথ মর্যাদায় জাতির পিতার জন্মাদিন উদযাপন

121

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীতে যথাযথ মর্যাদায় জাতির পিতা জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মাদিন উদযাপন হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে সরকারি- বেসরকারি সংস্থা, রাজনৈতিক সংগঠন, বিভিন্ন সামজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করে। কর্মসূচির মধ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পন, র‌্যালি, আলোচনাসভা, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুরস্কার বিতরণী ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মহানগর আ’লীগ : সকাল ১০টায় সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে নগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন। এরপর নগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, নগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেনী, মোহাম্মদ আলী কামাল, মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাইমুল হুদা রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আসলাম সরকার, নগর যুবলীগের সভাপতি রমজান লীগসহ নগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা আ’লীগ : দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের উদ্যোগে কেক কাটা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে। সংগঠনের সভাপতি রোকুনুজ্জামান রিন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান রানা।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, সংগঠনটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, আলফোর রহমান, দফতর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু, জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আলী আযম সেন্টু, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক বিপাশা খাতুন, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুজ্জামান শফিকঅ এসময় দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুদ্দিন শহিদসহ সাংগঠনিক নেতৃবৃন্দ।
রাজশাহী জেলা প্রশাসন : রাজশাাহীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস যথাযথ মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার সাথে উদযাপন করা হয়েছে। ১৭ মার্চ সকাল সাড়ে নয়টায় সিএন্ডবি মোড় হতে শিল্পকলা একাডেমি পর্যন্ত শিশু সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। সকাল দশটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
সকাল সোয়া দশটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর উপর আলোচনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। একই স্থানে ‘শিশুর স্বাস্থ্য সচেতনতা, পুষ্টি ও খাদ্য’ সম্পর্কে আলোচনা অনুষ্ঠান হয়। রাজশাহী জেলা প্রশাসক এসব কর্মসূচির আয়োজন করে।
রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার মো. নূর-উর-রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে বিভাগীয় পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিস আক্তার, ডিআইডি এম খোরশীদ হোসেন, পুলিশ সুপার মো: শহীদুল্লাহ, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আব্দুল হাদি প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
বক্তাগণ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন সর্বগুণের অধিকারী। তিনি জনগণের মুক্তির জন্য অনেক জেল জুলুম খেটেছেন এবং পাকিস্তানি হায়েনাদের অনেক নির্যাতন সহ্য করেছেন। তিনি শিশুদের খুব ভালোবাসতেন। তাঁরা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ পৃথিবীতে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এবং মেমোরিয়াল অব ওর্য়াল্ড রেজিস্টারে তাঁর ভাষণ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তিনি সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করেননি।
সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর আলোচনা ও ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়। বাদ যোহর সকল মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে সুবিধামত সময়ে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) নানা আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মদিন ও জাতীয় শিশুদিবস উদ্যাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৭টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক একেএম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এমএ বারী, ছাত্র-উপদেষ্টা অধ্যাপক লায়লা আরজুমান বানু, প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান প্রমুখ।
পরে সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সাবাস বাংলাদেশ’ চত্বর থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এবং শেখ রাসেল মডেল স্কুলের শিক্ষার্থীদের একটি শোভাযাত্রা বরে করা হয়। এর আগে বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান। এতে রাবি স্কুল ও শেখ রাসেল মডেল স্কুলের অধ্যক্ষদ্বয়সহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরে সিনেট ভবনে এক অনাড়ম্বর আয়োজনের মধ্যদিয়ে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যদ্বয় বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল প্রাঙ্গণে শিশু সমাবেশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চিত্রাংকন ও কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়া বাদ জোহার বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয় এবং সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শহিদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
অন্যদিকে বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে ক্যাম্পাসে এক আনন্দ র‌্যালি বের করে। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পিছনে দলীয় টেন্টে এসে শেষ হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া, সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান মিশু প্রমুখ।
রুয়েট:বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে যথাযথ মর্যাদায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) পালিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম দিবস এবং জাতীয় শিশু দিবস। গতকাল রোববার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনিক ভবনসহ বিভিন্ন ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর সকাল সাড়ে ৯ টায় কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে শিশুদের চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম শেখ।
এরপর উপাচার্য প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম শেখের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সকাল ১০ টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তব অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম শেখ।
এছাড়া শিক্ষক সমিতি, কর্মকতা সমিতি, কর্মচারী সমিতি এবং বিভিন্ন হলসহ ছাত্রলীগ রুয়েট শাখার পক্ষ থেকে প্রতিকৃতিতে পৃথক পৃথকভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম শেখ।
রাকাব : রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব) উদ্যোগে দিবসটি উপলক্ষে গতকাল রোববার সকাল ৮টায় বঙ্গবন্ধু অঙ্গনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের নিরীক্ষা, হিসাব ও আদায় মহাবিভাগের মহাব্যবস্থাপক সাইদুর রহমান, রাকাব কর্মচারী সংসদ (সিবিএ) কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি এসএম আব্দুল হান্নানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শওকত শহীদুল ইসলাম, অফিসার্স ফোরামের সভাপতি শেখ তৌফিক এলাহী, বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতৃবৃন্দসহ রাকাব প্রধান কার্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক, রাজশাহী জোনের জোনাল ব্যবস্থাপকসহ রাজশাহী জোন ও ব্যাংকের সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাকাব’র প্রাক্তন মহাব্যবস্থাপকগণসহ অবসরপ্রাপ্ত অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
রাজশাহী চেম্বার : সকালে দোয়া মাহফিল, চিত্রাংকন ও আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। চেম্বরের সভাপতি মনিরুজ্জমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ক্রেস্ট সার্টিফিকেট প্রদান করেন, নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সমাজসেবী শাহীন আকতার রেণী। অন্যনোদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, আবু বক্কর, সাদরুল ইসলাম শেখ রেজাউর রহমান দুলাল, আব্দুল গফফার প্রমুখ।
রেশম উন্নয়ন বোর্ড : দিবসটি উপলক্ষে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনকের জন্মদিনে বোর্ড বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মু: আবদুল হাকিম এর নেতৃত্বে সকালে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর আলোচনাসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বোর্ডের সদস ্য(অর্থ ও পরিকল্পনা) সৈয়দা জেবিননিছা সুলতানা, সদস্য(সম্প্রসারণ ও প্রেষণা) এম.এ মান্নান, সদস্য (উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ) মোছা. নাছিমা খাতুন, সচিব জায়েদুল ইসলাম, বাংলাদেশ রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট এর ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো: মুনসুর আলী এবং সিবিএ সভাপতি মো: আবু সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মো: সামছুল হক বক্তব্য দেন।
মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড : দিবসটি উপলক্ষে কেক কাটা, আলোচনাসভা, দোয়া ও মিলাদ মাহ্ফিলের আয়োজন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, শিক্ষা বোর্ডের সচিব প্রফেসর তরুণ কুমার সরকার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর ড. আনারুল হক প্রাং, বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফেসর দেবাশীষ রঞ্জন রায়, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) বাদশা হোসেন।
এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে বোর্ডের সিনিয়র সিষ্টেম এনালিষ্ট (চলতি দায়িত্ব) শফিকুল ইসলাম, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (রেকর্ড ও সনদ) জাহিদুর রহিম, গণসংযোগ অফিসার এএফএম খায়রুল আলম, শিক্ষা বোর্ডের কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি হুমায়ুন কবীর, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী। এসময় বোর্ডের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন, বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক হাবিবুর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন বোর্ডের প্রধান মূল্যায়ন অফিসার (চলতি দায়িত্ব) এসএম গোলাম আজম। শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পূর্নবাসন কেন্দ্রের শিক্ষার্থীদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ।
নিউ গভ. ডিগ্রী কলেজ : দিবসটি উপলক্ষে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, অধ্যক্ষ প্রফেসর এসএম জার্জিস কাদির। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর অলীউল আলম। প্রফেসর কামারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অন্যনোদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষক তানভিরুল হক, একেএম নুরুজ্জামানসহ কলেজের সকল বিভাগের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।
মহিলা টিটিসি : দিবসটি উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ উদযাপিত হয়েছে। মহিলা টিটিসির কর্মকর্তা/কর্মচারী ও ছাত্রীদের সমন্বয়ে আনন্দঘন পরিবেশে কেক কাটার মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের উৎসব শুরু হয়।
দিনের কর্মসূচি অনুযায়ী বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শসহ দিবস ভিত্তিক কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। এরপর আলোচনা পর্ব শুরু হয়। আলোচনা পর্বে অংশ গ্রহণ করেন রাজশাহী মহিলা টিটিসির অধ্যক্ষ নাজমুল হক সহ প্রশিক্ষক/শিক্ষক ও ছাত্রীগণ। সর্বশেষে হাজার বছরের শ্রেষ্ট সন্তান জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাতের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচীর সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।
ডায়াবেটিক অ্যাসোসিয়েশন : দিবসটি উপলক্ষে আলোচনাসভা, দোয়া মাহফিল এবং ফ্রি ডায়াবেটিস সনাক্তকরণ কর্মসূচি পালন করে। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, সমিতির সভাপতি প্রফেসর ডা. এম ফজলুর। বক্তব্য দেন, সমিতির সাধারন সম্পাদক প্রফেসর ডা. মামুন উর রশীদ, যুগ্ম সম্পাদক ড. তসিকুল ইসলাম রাজা,কার্যনির্বাহী সদস্য প্রফেসর আলতাফ হোসেন, ডা. ডি এম জহুরুল ইসলাম ও আরএমও ডা. শরীফুল হাসান। অনষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য, আজীবন সদস্য, চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, ডেপুটি চিফ মেডিকেল অফিসার ডা.আয়েশা সিদ্দীকা।
বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়: কাজলা ভবনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে দিনটি উদ্যাপন করে। তার মধ্যে ছিল বঙ্গবন্ধুর উপর আলোচনা, কুইজ প্রতিযোগিতা, সংগীত পরিবেশন, কবিতা আবৃত্তি, কেক কাটা এবং পথশিশুদের মধ্যে খাবার বিতরণ।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যে দিয়ে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন অনুষ্ঠানটির সভাপতি বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. রাশিদুল হক। এসময় উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. মো. হাবিবুল্লাহ, ফার্মেসী বিভাগের কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. একরামুল ইসলাম, কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মো. আল মামুনসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন কর্মের উপর আলোকপাত করে বক্তব্য প্রদান করেন। প্রফেসর ড. রাশিদুল হক বক্তব্য দেন। এরপর কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরুস্কার হিসেবে বঙ্গবন্ধুর উপর রচিত বই উপহার দেয়া হয়। শেষে জন্মদিনের কেক কটে ও পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়।
রামেবি: বর্ণাঢ্য আয়োজনে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (রামেবি) হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন করা হয়েছে। এ
সকালে রামেবি’র অস্থায়ী কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব। পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। উপাচার্যের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং অধিভুক্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য রালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর লক্ষ্মীপুর মোড় ও ঐতিহ্য চত্তর (টমটম চত্তর) প্রদক্ষিণ করে আবার অস্থায়ী কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরুস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।
রামেবি’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এসএমএ হুরাইরা’র সভাপতিত্বে পুরুস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপাচার্য অধ্যাপক ডা.মাসুম হাবিব। বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামেবি’র প্রিভেনটিভ অ্যান্ড সোশ্যাল মেডিসিন অনুষদের ডিন ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. জাওয়াদুল হক, রামেক’র বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক ডা. পারভিন সুলতানা, ফিজিওলজি বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ডা. উবাইদুল্লাহ্ ইবনে আলী, কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের সাবেক সহযোগি অধ্যাপক ডা. আব্দুর রশিদ এবং রাজশাহী নার্সিং কলেজের অধ্যক্ষ শেফালী খাতুন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রামেবি’র সেকশন অফিসার জামাল উদ্দীন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং অধিভুক্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
এনবিআইইউ: বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস যথাযত মর্যাদায় উদ্যাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে আলুপট্টিস্থ বঙ্গবন্ধু চত্বরে ইউনিভার্সিটির অ্যাকাডেমিক ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও গবেষক প্রফেসর ড. আবদুল খালেক।
এসময় প্রফেসর ড. আবদুল খালেক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব, বাঙালি জাতি ও বাংলাদেশ আজ এক সূতোয় গাঁথা পড়ে গেছে। কোন কিছুকে বিচ্ছিন্ন করে দেখবার পথ নেই। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম হতো না, এটি শুধু আবেগের কথা নয়, বাস্তব সত্য। অতীত ইতিহাসের কিছু পাতা উল্টালেই তার প্রমাণ মেলে। আজ থেকে হাজার বছর আগে বঙ্গভাষাভাষি একটি জনগোষ্ঠী এই অঞ্চলে বাঙালি জাতি হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছিল এবং অঞ্চলটি একসময় বঙ্গদেশ বলেও পরিচিতি লাভ করেছিল, কিন্তু ১৯৭১ সালের আগে এই বঙ্গদেশটি কখনও স্বাধীনতার মুখ দেখে নি। তার স্পষ্ট প্রমাণ যুগে যুগে দেশটির উপর চাপিয়ে দেওয়া বিদেশি রাষ্ট্রভাষা।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল, রেজিস্ট্রার রিয়াজ মোহাম্মদ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুকসুদুর রহমান, প্রক্টর ড. আজিবার রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, বিভাগীয় প্রধান, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
কাটাখালি পৌর মেয়র : পবা উপজেলার কাটাখালি পৌর সভার মেয়রের উদ্যেগে আশরাফ মেমোরিয়াল মডেল স্কুলে বঙ্গবন্ধুর ৯৯ তম জম্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উৎযাপন করা হয়। এসময় স্কুলের ছাত্র, ছাত্রী ও শিক্ষক বৃন্দ এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্তিত ছিলেন।
কাটাখালি পৌর মেয়র আব্বাস আলী শিক্ষার্থীদের নিয়ে কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জম্মবার্ষিকীর শুভ সূচনা করেন। পরে স্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনি নিয়ে আলোচনা করা হয়। পরে প্রতিযোগীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ করা হয়।
শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বর্নাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকালে র‌্যালি, বেলুন উড়ানো, কেক কাটা, দোয়া মাহফিল, আলোচনা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক রাজশাহী এসএম আবদুল কাদের। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ে পরিচালক (অদা) হাসিনা মমতাজ, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক রাশেদুল কবীর ও নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সমাজসেবী শাহীন আকতার রেণী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, প্রধান শিক্ষক সাইদুল ইসলাম ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ড.আব্দুল্লাহ আল ফিরোজ। সার্বিক তত্বাবধনে ছিলেন, উপপ্রকল্প পরিচালক নুরুর আলম প্রধান আলমগীর।
কালচারাল অ্যাকাডেমি : রাজশাহী কালচারাল অ্যাকাডেমি নানা আয়োজনে দিবসটি পালন করে। সকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে র‌্যালি, শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্তস্তবক অর্পন, দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে কালচারাল অ্যাকাডেমি মিলনায়তনে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন অ্যাকাডেমির গবেষণা কর্মকর্তা বেঞ্জামিন টুডু।
প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ও বিভাগীয় কালচারাল একাডেমির উপ-পরিচালক মোহাম্মদ সালাহ্উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কালচারাল একাডেমির নির্বাহী পরিষদ সদস্য প্রফেসর যোগেন্দ্রনাথ সরেন ও সাবেক শিক্ষক স্বপন বিশ্বাস। এছাড়াও বক্তব্য দেন অ্যাকাডেমির প্রশিক্ষক মানুয়েল সরেন। জাতির জনকের জীবনের উপর আলোকপাত শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে প্রধান অতিথি পুরস্কার বিতরণ করেন। পরে আদিবাসী শিল্পিদের সমন্বয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠিত হয়।
সরকারি সিটি কলেজ : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবসে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, অধ্যক্ষ প্রফেসর সানাউল্লাহ্ শেখ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর নিলুফার পারভীন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন, অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক ও সম্পাদক, শিক্ষক পরিষদ এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এএফএম বজলুল কবীর।
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মু. সাদিকুল ইসলাম, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আবদুল হাই সিদ্দিকী এবং একাদশ শ্রেণির ছাত্র মেহেদি হাসান।
অনুষ্ঠানের শেষপর্বে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর ৩০মিনিটের একটি ভিডিও ক্লিপ ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে প্রদর্শিত হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. আজিজুর রহমান।
ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে মা ও শিশু উৎসব এবং ফ্রি শিশু ক্যাম্প অনুষ্ঠিত। ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রাজশাহীর ডাইরেক্টর প্রফেসর ডা. এসআর তরফদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, হাসপাতালের শিশু বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. ছানাউল হক।
হাসপাতালের গাইনী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. আবেদা খাতুন সীমা। উপস্থিত ছিলেন, হাসপাতালের গাইনী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. নাসরিন বেগম ডটি, হাসপাতালের আবাসিক সার্জন ডা. সুলতানা নাজনীন রিতা ও গাইনী বিভাগের রেজিষ্টার ডা. নাসরিন। বক্তব্য দেন, পবা উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন, হাসপাতালের প্রশাসনিক ইনচার্জ সাইফুল আলম।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ চক্ষু হাসপাতাল : বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিশু শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ন বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা সেবা ও পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।
সকালে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু করা হয়। সকাল সাড়ে আটটায় বিভিন্ন বিদ্যালয় থেকে আসা শিশু চক্ষু রোগীদের চোখের পরীক্ষাসহ চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন এবং বিএনএসবি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ শাখার চেয়ারম্যান ডা. আয়াজউদ্দিন আয়াজ চাঁপাইনবাবগঞ্জ চক্ষু হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী একেএম খাদেমুল ইসলাম এবং সমিতির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্য আবদুল হাকিম।
চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমে চিকিৎসাসেবা প্রদান করেন মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মাহবুবুর রহমান, ডা. তোহুরুল ইসলাম, ডা. ইমরান জাভেদ প্রমুখ।
লফস: বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বেসরকারী উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংস্থা লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েল ফেয়ার (লফস) এর ব্যবস্থাপনায় দাতা সংস্থা বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের পক্ষে নগরীতে শিশুদের নিয়ে র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিতে প্রধান অতিথি ছিলেন দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবরুল হাসান মিল্লাত। র‌্যালিতে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শাহানাজ পারভীনসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও লফস এর আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. শাহিনুল হক মুন, পিনাকল স্টাডি হোমের প্রধান শিক্ষক সেকেন্দার হোসেন, কোষাদক্ষ্য শহিদুর রহমান, প্রোগ্রাম ম্যানেজার সালাউদ্দিন, প্রোগ্রাম অফিসার চম্পা খাতুন, প্রোগ্রাম এসিসটেন্ট সুলতানা রিজিয়া, পিনাকল স্টাডি হোমের শিক্ষকবৃন্দ সুর্পনা ভদ্র, চামেলি খাতুন, রিয়াজউদ্দিন, সন্ধি সিনহা, সিমিসহ শতাধিক শিশু ও অভিভাবকবৃন্দ র‌্যালিতে অংশ গ্রহন করে। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, সংস্থার সহ সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক আজিজুর রহমান।
চারুকলা মহাবিদ্যালয়: সকালে রাজশাহী আর্ট কলেজে দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও ভিডিও চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কলেজের বারপ্রাপ্ত অধ্যাপক রেজাউল ইসলাম। আলোচনা পর্বে বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ সম্পর্কে আলোকপাত করেন শিক্ষকমণ্ডলী ড. ইমরুল কায়েস, রাফিকুল ইসলাম তালুকদার, জারমান আলী, আবদুস সাত্তার, এসএম আখেরুল ইসলাম, আজমল হক, একেএম হাসান ইমাম, আশরাফুল হক রিপন, সুমন্ত কুমার প্রমূখ।
রাজশাহী বি.বি হিন্দু অ্যাকাডেমি: দিনব্যাপি নানা কর্মসূচির মাধ্যমে রাজশাহী বি.বি হিন্দু অ্যাকাডেমি দিবসটি উদযাপন করেছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের নিয়ে কুমারপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্র নাথ সরকার। পরে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অনল কুমার মণ্ডলের পরিচালনায় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও অবদান ভিত্তিক এক আরোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য দেন প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্র নাথ সরকার, সহকারী প্রধান শিক্ষক অনল কুমার মণ্ডল, সহকারী শিক্ষক প্রবীর কুমার দাস। আলোচনা শেষে শিশু দিবস উপলক্ষে প্রতিতযোগীতার পরুস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়।
সোনালী ব্যাংক : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড রাজশাহী বিভাগের পক্ষ থেকে জাতির পিতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধাজ্ঞাপনসহ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয় সংলগ্ন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়।
উপস্থিত ছিলেন, জেনারেল ম্যনেজার’স অফিসের জেনারেল ম্যানেজার আমির হোসেন, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার রোশদুল হক, মৃত্যুঞ্জয় সাহা, এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার রথীন্দ্র নাথ চক্রবর্তী, মো. কামরুজ্জামানসহ সোনালী ব্যাংক লিমিটেড রাজশাহী বিভাগের সর্বস্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ।
মসজিদ মিশন অ্যাকাডেমি : দিবসটি উপলক্ষে আলোচনাসভা, চিত্রাঙ্কন, কুইজ ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ মো. নূরুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী অধ্যাপক আবুল কাশেম, সিনিয়র প্রভাষক হোসেন তৌফিক ইমাম, শিক্ষক প্রতিনিধি তৌহিদুল ইসলাম, প্রভাষক কামরুজ্জামান, প্রভাষক মাওলানা সাইদুর রহমান, শিক্ষক প্রতিনিধি মাওলানা ফরিদ উদ্দীন আত্তার, প্রভাতী শাখার ইনচার্জ মাওলানা আফজাল হোসেন হামিদি। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এর আগে ক্রীড়া শিক্ষক কামরুজ্জামান-এর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল শিশু সমাবেশ ও র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবার এবং স্বাধীনতা সংগ্রামে জীবন উৎসর্গকারী লাখো শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন রাকাব প্রধান কার্যালয় মসজিদের পেশ ঈমাম সাইদুর রহমান।
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল : দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়।সকাল সাড়ে ৯টায় বিদ্যালয়ের স্কাউটদল ক্রীড়া শিক্ষকের নেতৃত্বে মনিচত্তর থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্প কলা অ্যকাডেমিতে গিয়ে শেষ হয়। বিদ্যালয়ের অন্যান্য ছাত্রদের নিয়ে তিনটি গ্রুপে সকাল ১০টায় শহিদ মিনারে শিশু দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা গয়। প্রতিযোগিতা শেষে বঙ্গবন্ধুর কর্মজীবনের উপর আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক্ষের সভাপতিত্বে সভায় বিদ্যালয়ের সগকারী শিক্ষক আনোয়ারুল ইসলাম বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন।
রাজশাহী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় : দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জোবাইদা নাহারের নেতৃত্বে বিদ্যালয়ের ১০ জন শিক্ষার্থী শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে অংশগ্রহণ করেন। সকাল ১০ টায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলামের সভাপতিত্বে শিক্ষার্থীদের পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রশিদুজ্জামান বাবু।
নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ : দিবসটি উপলক্ষে গতকাল সকালে নগর আওয়ামী লীগের কার্যালয় চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। নগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল মোমিন ও সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকারের নেতৃত্বে র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীগন অংশ গ্রহণকরে। এছাড়া দুপুরে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দুপুরে মানবভোজের আয়োজন করেন দিবসটি উপলক্ষে।
ইন্ডিপেনডেন্ট স্কুল : দিবসটি উপলক্ষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং দ্বিতীয় পর্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মজিবুল রহমান, রেজাউল হক মঞ্জু, মনিরুজ্জামান, রাশিদা পারভীন, রিজিয়া পারভীন, শাহজাহান আলী, হাবিবুর রহমান, এজাজুল ইসলাম, ইব্রাহিম হায়দারম এরফান আলী শাহীন, নিজাম উদ্দিন, ডা. কালাম প্রমুখ। বঙ্গবন্ধু ও সকল শহিদদরে আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাও.মঈনুল ইসলাম।
রাজশাহীর মুক্ত মঞ্চ শিশু থিয়েটার : দিবসটি উপলক্ষে ‘জানাই তোমায় সুরে মৃদু মৃদু হে স্বাধীনতার বন্ধু, হ্যাপি বার্থ ডে টু ইউ বাংলার বন্ধু, জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ শ্লোগানকে সামনে রেখে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। রাজশাহী মুক্ত মঞ্চ শিশু থিয়েটার পক্ষে সকাল ১১ টায় পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি তাপস চক্রবর্ত্তী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক দুর্লভ চক্রবর্ত্তী, হৃদয় ভট্টাচার্য, প্রমুখ।
সরকারি পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় : দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ৯ টায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় বিদ্যালয়ের মিলনায়তনে বিশেষ আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ভারপ্রাপ্ত আফরোজ খানমের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন, বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সাবেরা কামরুন নাহার ও জান্নাতুল ফেরদৌস।অনুষ্ঠান শেষে শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরষ্কার প্রদান করা হয়।
খাদেমুল ইসলামী বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ: রাজশাহীর খাদেমুল ইসলাম বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জম্মবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ সময় কলেজে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।সভায় সভাপতিত্ব করেন,অধ্যাক্ষ রনজিৎ কুমার শাহা। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন,সহকারী প্রধান শিক্ষক রতন কুমার মন্ডল, সহকারী অধ্যাপক শিরিনা পারভীন, প্রভাষক কাজি জুয়েল,আলফাজার রহমান প্রমুখ।
মুক্তিযুদ্ধ’৭১ : বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালনের লক্ষে মুক্তিসংগ্রাম পরিষদ-মুক্তিযুদ্ধ’৭১ কানপাড়া কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি গ্রহণ করে। কার্যালয়ে জাতীয় ও সংগঠনের পাতাকা উত্তোলন, সকাল ৮ টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, সকাল সাড়ে আটটায় জন্ম দিবসের কেক কাটা ও মিষ্টি বিতরণ, সকাল ১০ টায় আলোচনা সভা। কানপাড়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা যথাক্রমে তছের আলী মাষ্টার, ডা. ইয়াদ আলী, রমেশ চন্দ্র প্রাং, বয়েন উদ্দীন, আনিছুর রহমান (পোরশা) ও ডা. রফিক প্রমুখ।
অন্যদিকে, বাংলাদেশ মুক্তিসংগ্রাম পরিষদ-মুক্তিযুদ্ধ’৭১ কানপাড়া প্রত্যুষে কার্যালয়ে জাতীয় ও সংগঠনের পাতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্য দান, কেক কাটা ও মিষ্টি বিতরণ ও আলোচনা সভা। আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা তছের আলী মাষ্টার, ডা. ইয়াদ আলী, রমেশ চন্দ্র প্রামানিক, বয়েন উদ্দীন, আনিছুর রহমান (পোরশা) ও ডা. রফিক।
মহিষবাথান আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় :সকালে বিদ্যালয় চত্বরে প্রধান শিক্ষক মাহাবুব-উল-আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি একে মাসুদ। অন্যনোদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষক আরা শামীম, ইব্রাহিম খলিলুল্লাহসহ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।
মেট্রোপলিটন কলেজ : এ উপলক্ষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ জুলফিকার আহমেদের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য দেন, সহকারি অধ্যাপক মাহবুবা ইয়াসমীন, প্রভাষক সুলতান সাব্বির আহমেদ শিক্ষক মিজানুর রহমানসহ সকল বিভাগের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।
জেলা যুবলীগ : জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মাহমুদ হাসানের সভাপতিত্ব সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে দলীয় কার্যলয়ে আলোচনাসভা দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টুর পরিচালনায় বক্তব্য দেন, উপ-দফতর সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক বিপাশা খাতুন, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মোহাহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াসিম রেজা লিটন, মোবরক হোসেন প্রমুখ।
কৃষক পরিষদ : বিকেল সাড়ে পাঁচটায় নগর ও জেলা শাখার আয়োজনে আলোচনা সভা দোয়া মাহফিল ও মিষ্টি বিতারণ করা হয়। কবি হাসান উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন নগর কৃষক পরিষদের উপদেষ্টা ও আ’লীগের জেলা শাখার মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাভোকেট পূর্ণমা ভট্রাচার্য।
উপস্থিত ছিলেন, সোহরাব জামাল খান, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মাহমুদুন নবী তুষার, জেলা কমিটির আহ্বায়ক মিন্টু মেম্বর, ওবায়দুর রহমান শাহদাত হোসেন, রেবেকা আহম্মেদ, নাজনীন সুলতানা, ইসরাফিল ইসলাম, হায়াত আলী চৌধুরী প্রমুখ।
পবা উপজেলা আ’লীগ : রোববার সকালে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, র‌্যালি ও আলোচনা সভা। এসব কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ শিল্প বিষযক সম্পাদক মনসুর রহমান, পবা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ইয়াসিন আলী, সহসভাপতি বেগম সুফিয়া হাসান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, দপ্তর সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সহদপ্তর সম্পাদক নজরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক ছিদ্দিকুর রহমান, পবা মহিলা লীগ সভাপতি নারিফা বেগম, সাধারণ সম্পাদক আফরোজা বেগম, উপজেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি আনছার আলী, সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নয়ন প্রমুখ।
অন্যদিকে, রাজশাহীর পবা উপজেলায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনব্যাপি স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মদিনে এ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে।
পবার নলখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ মেডিকেল ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন হরিয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মফিদুল ইসলাম বাচ্চু। ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন প্যারালাইসিস রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. রায়হানুল হক রনি ও স্ত্রী রোগ প্রসুতি বিদ্যা বিষয়ে বিশেষ অভিজ্ঞ ডা. সুরাইয়া রশিদ। এদিন বিভিন্ন এলাকার প্যারালাইসিস ও স্ত্রী রোগে আক্রান্ত রুগিরা চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেন এবং বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ করা হয়।
রাজশাহীতে শিমুল মেমোরিয়াল স্কুল
রাজশাহী শিমুল মেমোরিয়াল নর্থ সাউথ স্কুলের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত। এ উপলক্ষে রোববার সকাল ১০ টার দিকে নিজস্ব ভবনে আলোচনা সভা, শিক্ষার্থীদের বক্তৃতা, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী শিমুল মেমোরিয়াল নর্থ সাউথ স্কুলের চেয়ারম্যান রোটারিয়ান এম এ মান্নান খান, নির্বাহী পরিচালক রোটারিয়ান ইঞ্জিনিয়ার নাজমা রহমান, প্রিন্সিপাল, ভাইস প্রিন্সিপাল, শাখা প্রধানসহ সকল শিক্ষকবৃন্দ, শিক্ষার্থীরা ও অভিভাবকবৃন্দ।

পরিশেষে দোয়া পরিচালনার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।
পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড: সকালে মহিষবাথান কলোনী মাঠ ও মিশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে মিশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রতিভা পাবলিক স্কুলের উদ্যোগে কেক কেটে ও বেলুন ফেষ্টুন উড়িয়ে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান কামরু।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, ৪ নম্বর ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সম্মানিত কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনু এবং কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকু, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি শফিকুজ্জামান শফিক, রাজশাহী চার্চ ডিন সেমসন মজুমদার, আবুল কালাম, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আমিন কালু, মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সামাদ। বক্তব্য দেন মিন্টু সরকার, সহকারী শিক্ষক চিত্তরঞ্জন মজুমদার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারিয়া অলকা মণ্ডল ও প্রতিভা স্কুলের পরিচালক আবুল বাশার। পরে শিশুদের বিভিন্ন ক্রিড়া প্রতিযোগীতা, চিত্রাংকন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
এসিডি : ‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন রঙ ছড়ানো আলো, লাল-সবুজের বাংলাদেশে থাকবে শিশু ভালো’ এই স্লোগাকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন পালন করেছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’। গতকাল রবিবার দুপুর ১২টায় এসিডি’র কনফারেন্স রুমে সভা অনুষ্ঠিত হয়।
নির্বাহী পরিচালক সালীমা সারোয়ারের সভাপতিত্বে প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মিরাজ উদ্দিন তালুকদারের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন প্রতিষ্ঠানের প্রোগ্রাম ম্যানেজার আলী হোসেন, প্রজেক্ট প্রোগ্রাম ম্যানেজার শাহিনুর রহমান, মোস্তফা কামাল আব্বাস সিদ্দিকী, মিডিয়া ম্যানেজার আমজাদ হোসেন শিমুল, প্রজেক্ট অফিসার আব্দুল লতিফ, প্রোগ্রাম অফিসার কৃষ্ণা রাণী বিশ্বাস, ইয়ুথ লিডার ফাতেমা আক্তার স্ইুটি, মাজহারুল ইসলাম, রাশেদুল ইসলাম প্রমুখ।
মেহেরচন্ডী স্কুল: সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কেক কাটা আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রবিউল আলমের সভাপতিত্বে সভায় ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
নগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ: মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নগর কমান্ড যৌথভাবে দিবসটি পালন করেছে। সকালে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে পতাকা উত্তোলন, প্রতিকৃতিতে পুষ্প মাল্যদান দান মিষ্টি বিতরণ, সকাল ৯টায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে জেলা কমান্ডার শাহাদুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপিকা জিনাতুল নেছা তালুকদার, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের নেতা অ্যাডভোকেট মতিউর রহমান, নগর কমান্ডার ডাঃ আঃ মান্নান, জেলা ইউনিটের নির্বাহী সদস্য আব্দুস সামাদ, জেলা সাবেক ডেপুটি কমান্ডার কেএমএম ইয়াছিন আলী মোল্লা। সহকারী কমান্ডার শেখ দিল মোহাম্মদ, আবদুস সাত্তার, নগর ডেপুটি কমান্ডার মোহাম্মদ আলী কামাল ও রবিউল ইসলাম, সহকারী কমান্ডার নাজিম উদ্দীন, অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, সিরাজুল ইসলাম লাল প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ চাই : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ.আ.ম.স. আরেফিন সিদ্দিক বলেন, আজকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী। তাঁর জন্মদিনে সকলকে শুভেচ্ছা জানাই, শুভকামনা জানাই এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই। একই সাথে বঙ্গবন্ধুর আহব্বানে যারা অকাতরে জীবন দিয়ে গেলেন, ৩৩ লক্ষ শহীদ তাঁেদর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা। বঙ্গবন্ধু আজ আমাদের মাঝে নেই। কিন্তু তিনি প্রতিটি বাঙ্গালির অন্তরে অবস্থান করছেন। যারা বঙ্গবন্ধুকে দেখেছেন, বঙ্গবন্ধুর সাথে মেলামেশার সুযোগ পেয়েছেন তারা তো বটেই, নতুন প্রজন্ম যারা হইতো বঙ্গবন্ধুকে দেখেন নি কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কথা শুনেছেন। বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা জানেন। তারা প্রত্যেকে বঙ্গবন্ধুর অবদানকে প্রতিটি মূহূর্তে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করবে। আমরা স্বাধীন বাংলাদেশে বসবাস করি এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত সৌভাগ্যের। যারা আজ পরাধীন আছে তারা হয়তো স্বাধীনতাকে উপলব্ধী করতে পারবে। আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। স্বাধীনতার সুফল সাধারণ জনগণের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ায় ছিলো বঙ্গবন্ধুর সারাজীবনের লক্ষ্য।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে স্বাধীনতার স্বপক্ষের অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ চাই’র দোয়া-মাহফিল ও আলোচনা সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিকেল সাড়ে ৪টায় আয়োজিত এই কর্মসূচিতে ড. আ.আ.ম.স. আরেফিন সিদ্দিক মোবাইল ফোনে তার বক্তব্য রাখেন।
বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ চাই’র আহ্বায়ক রাজশাহী প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক আসলাম-উদ-দৌলার সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কলামিস্ট মুক্তিযোদ্ধা প্রশান্ত কুমার সাহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জননেতা আতাউর রহমান-ভাষাসৈনিক মনোয়ারা রহমান-জননেতা মাদার বখশ্ পরিবারের সদস্য রাজশাহী প্রেসক্লাব সভাপতি সাইদুর রহমান, জাসদ মহানগর সভাপতি আশির দশকের ছাত্রনেতা নুরুল ইসলাম হিটলার, রাজশাহী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মর্জিনা পারভিন ও বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ চাই’র সদস্য সচিব রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খালেদ হাসান বিপ্লব। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সদস্য ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত সৈকত। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- সেক্টর কমান্ডার ফোরাম মহানগর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, রাজশাহী প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য গোলাম সারওয়ার।
আলোচনা রাখেন- জাতীয় পার্টির মহানগর সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন মিন্টু, রাজশাহী বারের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট সিরাজী শওকত সালেহীন এলেন, বিশিষ্ট সাংবাদিক কাজী রকিবউদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা পঙ্কজ দে, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ চাই’র সদস্য ডা. রোকনুজ্জামান রিপন ও রাকেশ পাল, সংগঠনের সদস্য রাজশাহী মহানগর রিক্সাভ্যানচালক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুজ্জামান কাজল, বিচারপতি বজলার রহমান ছানা স্মৃতি পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক বরজাহান আলী, সদস্য নাজমুল কবির নয়ন, সাংবাদিক নূরে আসলাম লিটন প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখা : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। রবিবার বিকাল ৪:৩০ মিনিটে নগরীর আলুপট্টিস্থ বঙ্গবন্ধু চত্বরে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর আবদুল খালেক। সভায় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা করেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপিকা জিন্নাতুন নেছা তালুকদার, রা.বি উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, রা.বি সাবেক উপ-উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ নূরুল্লাহ্, বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর মো. আবুল কাশেম, রা.বি রেজিস্ট্রার প্রফেসর এম এ বারী, প্রফেসর সরকার সুজিত কুমার, অধ্যাপক সাজ্জাদ বকুল, ছাত্রলীগ নেতা আহসানুল হক পিন্টু, নারীনেত্রী মর্জিনা পারভীন প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ছাদেকুল আরেফিন মাতিন। আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য প্রফেসর দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, ডা. এম. তবিবুর রহমান সেখ, একেএম শওকত উদ্দীন রেন্টু, ইদ্রিস আলী, জামসেদ হোসেন টিপু প্রমুখ।

SHARE