থাই রাজকুমারীকে মনোনয়ন দেয়ায় গোটা দলই বিলুপ্ত

118

গণধ্বনি ডেস্ক : থাইল্যান্ডের ২৪ মার্চের সাধারণ নির্বাচনে রাজকুমারী উবোরাতানা বার্নাভাদিকে প্রধানমন্ত্রী পদে মনোনয়ন দিয়েছিল দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার সমর্থিত রাকসা চার্ট পার্টি। এতেই চরম খেসারত দিতে হয়েছে দলটিকে।

রাজকুমারীকে মনোনয়ন দেয়ায় গোটা রাজনৈতিক দলটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করেছেন দেশটির আদালত।

বিবিসি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার এক রায়ে থাইল্যান্ডের সাংবিধানিক আদালত রাকসা চার্ট পার্টিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে।

শুধু তাই নয়, ওই রায়ে রাকসা চার্ট পার্টির নির্বাহী কর্মকর্তাদের ১০ বছরের জন্য রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

রায়ে বিচারক নাখারিন ম্যাকত্রাইরাত আদালতে বলেন, রাজপরিবারের স্থান রাজনীতির ওপরে। রাজপরিবারের প্রতি সদস্যের রাজনৈতিক নিরপেক্ষতা বজায় রাখা উচিত। রাজা, রানী ও রাজকুমারীরা কখনও রাজনৈতিক অধিকারের চর্চা করেন না।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে দলটিকে নির্বাচনের অন্যতম মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছিল।

দলটির সমর্থিত নেতা সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা ২০০৬ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হয়ে নির্বাসিত হন।

এখন নির্বাচনে থাকতে হলে থাকসিনের সমর্থকদের নতুন কোনো দল গঠন করতে হবে নতুবা বিদ্যমান কোনো দলকে সমর্থন দিতে হবে।

থাই রাজনীতি বিশ্লেষকরা আগেই জানিয়েছিলেন, রাজার বোনকে মনোনয়ন দিয়ে রাজপরিবারের নিরপেক্ষতাকে ঝুঁকির মুখে ফেলায় রাকসা চার্ট পার্টি বিপদে পড়তে পারে।

তবে রাজকন্যা উবোরাতানার সমর্থন এবাবের নির্বাচনে থাকসিনের দলকে আবারও জনপ্রিয় করে তুলেছিল।

SHARE