‘বন্দুকযুদ্ধে’ পুলিশ পেটানো মামলার আসামি নিহত

188

স্টাফ রিপোর্টার :রাজশাহীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পুলিশ পেটানোর এক মামলার আসামি নিহত হয়েছেন। তার নাম আলমগীর হোসেন ওরফে আলো (৪৯)। তিনি নগরীর মতিহার থানার ডাশমারি মহল্লার মোক্তার হোসেনের ছেলে।

শনিবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে কাটাখালি থানার মধ্যচরে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সঙ্গে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। আরএমপির মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী কমিশনার ইফতেখায়ের আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আলমগীর হোসেন শহরের একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যা ও মাদকসহ নানা অভিযোগে ১০টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ গত ২ অক্টোবর তার বিরুদ্ধে ডিবি পুলিশের দুই সদস্যকে পিটিয়ে মাদকসহ আটক এক ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মামলা হয়।

আলমগীর হোসেন সম্প্রতি অনুষ্ঠিত রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছিলেন। নির্বাচনি হলফনামায় তিনি উল্লেখ করেছিলেন, তার বিরুদ্ধে চলমান মামলার সংখ্যা তিনটি। এগুলোর মধ্যে দুটি চোরাচালান ও একটি হত্যা মামলা।

আরএমপির মুখপাত্র বলেন, রাতে পদ্মা নদীর চরে অস্ত্র ও চোরাচালানবিরোধী অভিযানে যায় নগর ডিবি পুলিশের একটি দল। তখন কয়েকজন ব্যক্তি পুলিশকে লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলিবর্ষণ শুরু করে। আত্মরক্ষায় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। কয়েক মিনিট দুই পক্ষের গোলাগুলির পর অন্যরা পালিয়ে যান। তবে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকেন আলমগীর হোসেন। এ সময় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ইফতেখায়ের আলম জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটার গান, ১৯৮ বোতল ফেনসিডিল ও দুটি মুঠোফোন জব্দ করা হয়েছে। এ নিয়ে থানায় তিনটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এগুলোর মধ্যে একটি মামলা হবে পুলিশের ওপর হামলা, একটি অস্ত্র উদ্ধার এবং অপরটি মাদক উদ্ধারের ঘটনায়। এসব মামলায় অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যক্তিকে আসামি করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

SHARE