রাজশাহীতে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

189

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : অবৈধ জুয়ার বোর্ড নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে রাজশাহী প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক ও দৈনিক উপচার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নূরে ইসলাম মিলনকে সন্ত্রাসীরা অস্ত্র নিয়ে হত্যার চেষ্টায় হামলা করে। পরবর্তিতে উপচার পত্রিকার তরুণ সাংবাদিক অশিক ইকবাল অন্তরকে অলোকার মোড়ে প্রকাশ্যে গুলি করে। সেই সাথে সপুরা পানিউন্নয়ন বোর্ডের সামনে মোয়াজ্জেম হোসেন লিটনের শরীরে গরম পানি ঢেলে পুরো শরীর ঝলসে দেয়ার প্রতিবাদে রাজশাহীতে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। আজ শনিবার বেলা ১১টার সময় রাজশাহী মহানগরীর অলোকার মোড় রাজশাহী চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সামনে অত্র এলাকাবাসী, স্থানীয় ব্যবসায়ীবৃন্দ ও সুশীল ছাত্র সমাজ এ প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেন।

প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন থেকে বক্তারা সাংবাদিক মিলনকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা ও তরুণ সাংবাদিক অন্তরকে গুলি করে হত্যাচেষ্টা ঘটনার তিব্র প্রতিবাদ জানানোসহ পলাতক আসামীদের অবৈধ পিস্তলসহ গ্রেফতার করে অপরাধীদের দ্রুত বিচার আইনে মামলা ও আহত সাংবাদিক অন্তরের উন্নত চিকিৎসার দাবি জানান। সেই সাথে রাসিকের নবনির্বাচিত মেয়র মহদয়ের কাছে শিক্ষা নগরী রাজশাহীকে শিক্ষা নগরীতেই রুপান্তরীত করে মাদক ও জুয়া মুক্ত নগরী উপহার চান তারা।

২০নং ওয়ার্ডবাসী হারুনুর রশীদ ফরহাদের সভাপতিত্বে ও রাজশাহীসময়২৪ ডট কম অনলাইন পত্রিকার সম্পাদক মাসুদ রানার পরিচালনায় প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন দৈনিক উপচার পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ড.আবু ইউসুফ সেলিম, এলাকাবাসীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন নাহিদ হাসান, আব্দুর রকীব বুরো, ব্যবসায়ীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন রানিবাজার এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এ এইচ শাহীন, হারুনুর রশিদ হারুন, আশরাফুল ওমর দুলালসহ স্থানীয় ব্যবসায়ী বৃন্দরা।

দৈনিক উপচার পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক ড.আবু ইফসুফ সেলিম বলেন, দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে অস্ত্রবাজি করে অস্ত্রসহ দুইজন আটক হলেও অভিযুক্ত শিরোইল কলোনি এলাকার এজাহার ভুক্ত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হাবীবসহ অনান্য আসামীরা এখন পর্যন্ত বহাল তবিয়তে ঘুরাফেরা করছেন। শুধু তাই নয় গত ২৭সেপ্টম্বরের হামলায় ব্যবহৃত আরো ৩টি পিস্তল এখন পর্যন্ত উদ্ধার করতে পারেনি প্রশাসন। আমরা আজ এই প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন থেকে প্রশাসনকে বলতে চাই অবিলম্বে এই অবৈধ অস্ত্রগুলি উদ্ধারসহ অস্ত্র ব্যবহারকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির ব্যবস্থা করুন। তা না হলে আরেক মিলনের ওপরে হামলা হবে, গুলি বৃদ্ধ হবে আরেক অন্তর।

২০নং ওয়ার্ডবাসী হারুনুর রশীদ ফরহাদ বলেন, ইদানিং লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, মাদক, জুয়া ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কেউ কোন কথা বলছেন না। রাজশাহী মহানগরীতে জুয়া, সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ অভিযান হলেও এগুলোকে পুরোপুরি নির্মূল করা সম্ভব হয়নি। বর্তমানে এসকল সন্ত্রাসীরা এতই শক্তিশালী হয়ে উঠেছে যে, এদের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে এরা যে কোন সময় সাধারণ জনগণের প্রাণ হানির কারন হতে পারে। তাই রাসিকের নবনির্বাচিত মাননীয় মেয়র মহোদয়ের কাছে শিক্ষা নগরী রাজশাহীকে শিক্ষা নগরীতেই রুপান্তরীত করে মাদক ও জুয়া মুক্ত নগরী উপহার চান তিনি।

মানববন্ধন কর্মসুচিতে ১২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আহসান হাবিব হাসান, মহানগর তাঁতিলীগের সাধারণ সম্পাদক মকসেদুল আলম সুমন, ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম, রাজশাহী বিক্রয় প্রতিনিধি এসোসিয়েসনের সভাপতি নাজমুল ইসলামসহ স্থানীয় ব্যবসায়ী, দোকান মালিক, শিক্ষক, যুবসমাজ, স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ এলাকাবাসীরা অংশগ্রহণ করেন।

SHARE