ভুয়া ব্যালট ছাপাচ্ছে বিএনপি: বাদশা

180

স্টাফ রিপোর্টার :  নির্বাচনে নিশ্চিত ভরাডুবি জেনে বিএনপি ভুয়া ব্যালট পেপার ছাপাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনে ১৪ দল মনোনীত ও মহাজোট সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশা। বৃহস্পতিবার সকালে মহানগরীর চার নম্বর ওয়ার্ডের পুলিশ লাইন এলাকায় নির্বাচনি প্রচারণার শুরুতে সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির এই সাধারণ সম্পাদক।

ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘বিএনপির পক্ষে জনমত নেই। সারাদেশে নৌকার জোয়ার উঠেছে। তাই বিএনপি এখন ভোট ইঞ্জিনিয়ারিং করে নির্বাচনে জিততে চায়। আমি শুনেছি, তারা এখন বগুড়ায় ভুয়া ব্যালট ছাপাচ্ছে। কিন্তু এসব ব্যালট নিয়ে তাদের কর্মী-সমর্থকরা যেন ভোটকেন্দ্রে ঢুকতে না পারে সে জন্য আমার দলের কর্মী-সমর্থকদের সতর্ক থাকতে বলেছি।’

‘জনগণ বিএনপিকে সমর্থন দেবে কেন? বিএনপির আমলে কানসাটের কৃষকরা বিদ্যুৎ চাইলো, ২০ জন কৃষককে হত্যা করা হলো। গোবিন্দগঞ্জের কৃষকরা সার চাইলো, ১৭ জন কৃষককে হত্যা করা হলো। ওরা ক্ষমতায় এলে দেশের নিরীহ মানুষকে নিপীড়ন করে। আর আমাদের সরকারের কাছে মানুষকে কিছু চাইতে হয়নি। আমরা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিয়েছি। বিনামূল্যে সার দিয়েছি। মানুষ এসব ভুলে যাবে না।’

রাজশাহী সদরের টানা দুই মেয়াদের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা এবার নির্বাচনে রাজশাহীবাসীকে ৪৪ দফা ইশতেহার দিয়েছেন। তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু কোনো ইশতেহার দেননি। বিষয়টি উল্লেখ করে বাদশা বলেন, ‘আমি রাজশাহীর মানুষের জন্য কী করতে চাই তা স্পষ্টভাবে তুলে ধরেছি। তিনি ইশতেহার দেননি। তার কারণ হলো, বিএনপির কোনো লক্ষ্য নেই। তারা ব্যস্ত বোমা তৈরিতে। ইশতেহার লেখার সময় নেই। শুধু নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে এবং নস্যাৎ করার চেষ্টায় তারা নির্বাচনে অংশ নিয়েছে।’

বাদশা বলেন, ‘আগে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা দুর্নীতি করেছে, লুটপাট করেছে, সন্ত্রাস করেছে। বাংলা ভাইকে মদদ দিয়েছে। দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করেছে। আর গত ১০ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ এখন মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে। তাই এখন যেখানেই যাচ্ছি সেখানেই লোকজন সমস্বরে চিৎকার দিয়ে বলছে, তারা আবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাকেই চায়।’

তিনি বলেন, ‘রাজশাহীবাসীকে আমি দারুণভাবে নৌকার প্রতি আকৃষ্ট করতে পেরেছি। তারা নৌকায় ভোট দেবেন এবং প্রমাণ করে দেবেন যে তারা উন্নয়নের পক্ষে। আমি আর সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন একসঙ্গে কাজ করব। সারাদেশের উন্নয়নের সঙ্গে রাজশাহীও যেন সমান গতিতে এগিয়ে যেতে পারে তার জন্য কাজ করে যাব।’

ফজলে হোসেন বাদশা এ দিন চার নম্বর ওয়ার্ডের পুলিশ লাইন মোড় থেকে গণসংযোগ শুরু করেন। পরে তিনি ৮, ১১ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় নৌকা প্রতীকের প্রচার চালান। তার সঙ্গে বিশাল এক মিছিল নিয়ে অংশ নেন ১৪ দলের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থক। তারা স্থানীয় বাসিন্দা ও ব্যবসায়ীদের হাতে হাতে লিফলেট তুলে দিয়ে নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন। ফজলে হোসেন বাদশাও সাধারণ মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

এ সময় তার সঙ্গে রাজপাড়া থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান বাবু, ওয়ার্কার্স পার্টির থানা সদস্য মোখলেসুর রহমান মুকুল, ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনু, সাবেক কাউন্সিলর সাজ্জাদ হোসেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ কবির মুক্তা, সাধারণ সম্পাদক হিমাদ্রি প্রসাদ রায়, ওয়ার্ড ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি শ্যামল কুমার ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আহমেদ, অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রফিকুজ্জামান বেল্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

SHARE