রাজশাহীতে বিএনপি প্রার্থীর প্রস্তাবে বিব্রত রিটানিং কর্মকর্তা

139

স্টাফ রিপোর্টার : ‘‘ক্ষমতাসীন দল রাজশাহীতে কয়টি আসন চায় সেটি আমাদের বলেদিন; ওই আসনগুলোতে আমরা ভোট করবো না’’ রিটানিং কর্মকর্তার কাছে এমন প্রস্তাব রাখেন রাজশাহী-২ আসনের বিএনপির প্রার্থী ও দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু।

সোমবার প্রার্থীদের সঙ্গে রিটানিং কর্মকর্তার মতবিনিময় সভায় এমন প্রস্তার রাখেন তিনি। মিনুর এমন প্রস্তাবে বিব্রত বোধ করেন রিটানিং কর্মকর্তা।

জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রাজশাহীতে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করতে রিটানিং কর্মকর্তা এ সভার আয়োজন করে। বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী-২ আসনের বিএনপির প্রার্থী মিজানুর রহমান মিনু, রাজশাহী-৫ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. মনসুর রহমান, রাজশাহী-৩ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী এ্যাড. শফিকুল হক মিলন, রাজশাহী-৪ আসনের বিএনপির প্রার্থী আবু হেনা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের তাজুল ইসলাম, সিরাজুল করিম।

মিজানুর রহমান মিনু ধনের শীষের পোস্টার, ব্যানার ফেস্টুন ছিড়ে ফেলা, নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার, হয়রানি ও ভয়ভিতি দেখানোর অভিযোগ তুলেন। তিনি বলেন, ‘‘পুলিশ ও ক্ষমতাসীন সরকারি দলের প্রার্থীর লোকজন এ সব কর্মকান্ড চালাচ্ছে।’’

এ সব অভিযোগ তুলে বক্তব্যের শেষে মিনু বলেন, ‘‘আমরা এখন যানতে চাই রাজশাহীতে কয়টা সিট সরকারি দল চায়। সেটি আমাদের বলে দিন। আমরা সে আসনগুলোতে ভোট করবো না।’’

মিনুর এমন প্রস্তাবে রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদেরের চোখে-মুখে বিব্রত বোধ ফুটে উঠে। কপালেও ভাজ লক্ষ্য করা যায়। মিনুর প্রস্তুবের জবাবে রিটানিং কর্মকর্তা বলেন, ‘‘যা অভিযোগ আছে সেগুলো লিখিত দেন। আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।’’

তিনি আর বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপুর্ণ নির্বাচন করতে আমরা চেষ্টা করছি। এখন পর্যন্ত রাজশাহীতে নির্বাচনী মাঠের পরিবেশ সুন্দর রয়েছে। আশা করছি প্রতিদ্বন্দ্বিপূর্ণ নির্বাচন হবে।

মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র জেলা সহকারি রিটার্নিং অফিসার ফরিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জুলকার নায়ন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আলমগীর কবির, রাজশাহী-২ আসনের সহকারি রিটার্নিং অফিসার পারভেজ রায়হান প্রমূখ।

SHARE