গোপালগঞ্জে বাস-মাহেন্দ্র সংঘর্ষে নিহত ১১

254

গণধ্বনি ডেস্ক : গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় বাস ও মাহেন্দ্রর সংঘর্ষে একই পরিবারের চারজনসহ অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হরিদাসপুর এলাকায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে এ সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ২০ জন।

নিহতদের মধ্যে ৯ জনের পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন—  গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সুলতানশাহী গ্রামের আল আমীন শেখের মেয়ে মরিয়ম (৮), ছেলে নয়ন শেখ (১১), আল আমীনের শাশুড়ি রেনু রেগম (৪৫), শ্যালিকা মেঘলা (৯), মাহেন্দ্র চালক একই উপজেলার সুকতাইল গ্রামের রাজিব মোল্লা (২০), হরিদাসপুর গ্রামের আক্কাস মোল্লার ছেলে সাদ্দাম মোল্লা (২৫), একই উপজেলার ডুমদিয়া গ্রামের ঝিলু গাজীর মোর্শেদ গাজী (৪০), তেবাড়িয়া গ্রামের কাশেম শেখের ছেলে জানে আলম শেখ (৩৭) ও চন্দ্রদিঘলিয়া গ্রামের ছলেমান সিকদারের ছেলে জগলু সিকদার (৩৫)।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকার ও পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান খান জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা গোপালগঞ্জগামী গোল্ডেন লাইনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মাহেন্দ্রর (থ্রি-হুইলারের) সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের পর মাহেন্দ্রটি  বাসের নিচে চলে যায় এবং দুমড়ে মুচড়ে বাসটি বাস্তার পাশ্ববর্তী খাদে পড়ে যায়। এই দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই শিশু ও নারীসহ ১১ জনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আরো ২০ জন। পুলিশ, গোপালগঞ্জ ও ফরিদপুরের ফায়ার সার্ভিস কর্মী এবং স্থানীয়রা উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে। আহতদের উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জে আড়াই শ’ বেড জেনারেল হাসপতালের উপ-পরিচালক চৌধূরী ফরিদুল ইসলাম জানান, হাসপাতালে ১০ জনের লাশ রয়েছে। একজনের লাশ স্বজনরা নিয়ে গেছে।

SHARE