রাজশাহীতে বিরল ঈগল অবমুক্ত

182

স্টাফ রিপোর্টার :  রাজশাহীতে বনবিভাগের উদ্যোগে একটি বিরল প্রজাতির ঈগল উদ্ধার করে অবমুক্ত করা হয়েছে। এর আগে বাংলাদেশ বার্ড ক্লাব ও ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার-আইইউসিএন এর উদ্যোগে পাখিটির পায়ে রিং পরানো হয়।

বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নাটোরের নলডাঙ্গা থানার দুর্লভপুর গ্রামের কৃষক ফারুক সরদার হালতির বিল থেকে ঈগলটিকে উদ্ধার করেন। সে সময় শারীরিক দুর্বলতার কারণে ঈগলটি উড়তে পারছিল না। বনবিভাগের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সবুজ বাংলা’ এর সদস্য ফজলে রাব্বি খবর পেয়ে বনবিভাগকে বিষয়টি অবহিত করেন। এরপর গত ১৫ নভেম্বর বনবিভাগ সেখান থেকে পাখিটি উদ্ধার করে রাজশাহীতে তাদের ‘রেসকিউ সেন্টারে’ এনে রাখেন।

রাজশাহী বিভাগের মাঠ পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম জানান, পাখিটি অভুক্ত থাকায় দুর্বল হয়ে পড়েছিল। প্রতিদিন তাকে সাড়ে ৭০০ গ্রাম করে মাংস খাওয়ানো হয়েছে। তারা খাঁচার ভেতরে পাখিটি ছেড়ে দিয়ে দেখেছেন, এটা উড়তে পারছে।

বিকেলে রেসকিউ সেন্টারে বাংলাদেশ বার্ড ক্লাবের সদস্য অণু তারেক ও আইইউসিএন এর কর্মকর্তা জেনিফার আজমেরী পাখিটির পায়ে রিং পরান। অণু তারেক জানান, এটি একটি বিরল ঈগল। এরা পৃথিবীতে সঙ্কটাপন্ন। সাধারণত এরা মঙ্গলিয়া বা সাইবেরিয়া থেকে এসেছে। এর ইংরেজি নাম Steppe eagle.

তিনি বলেন, এটা খুবই ভালো খবর যে, ঈগলটি আবার প্রকৃতিতে ফিরে যেতে পারছে। কেননা, এর আগে দেখা গেছে, চিকিৎসায় সুস্থ হলেও তারা উড়তে পারে না।

বিকেল সাড়ে চারটার দিকে রাজশাহীতে পদ্মার নদীর চরে ঈগলটিকে অবমুক্ত করা হয়। ঈগলটি বেশ স্বচ্ছন্দে উড়ে গিয়ে একটি আমগাছের মাথায় গিয়ে বসে। এ সময় রাজশাহী বিভাগীয় বনকর্মকর্তা জিল্লুর রহমান, অণু তারেক, জেনিন আজমেরী ও বনবিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা ও স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

SHARE