রাজশাহীতে ছাত্র ও যুবমৈত্রী ছেড়ে সহস্রাধিক নেতাকর্মী আ.লীগে

188

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীতে ওয়ার্কার্স পার্টির ছাত্র ও যুব সংগঠন ছাত্রমৈত্রী এবং যুবমৈত্রীর সহস্রাধিক সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন। শুক্রবার বিকেলে মহানগরীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে বড় মসজিদের সামনে যোগদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামানের হাত থেকে ফুল নিয়ে তারা যোগদান করেন। আগামীতে আওয়ামী লীগের নীতি, আদর্শ ও গঠনতন্ত্র মেনে আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ কর্মী হয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন যোগদানকারীরা।

শুক্রবার বিকেলে মহানগর আওয়ামী লীগ এ যোগদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। যোগদান অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে সাবেক ছাত্রমৈত্রী ও যুবমৈত্রী নেতা এ্যাডভোকেট আবু রায়হান মাসুদের নেতৃত্বে সহস্রাধিক নেতাকর্মী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের হাত থেকে ফুল নিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে সাবেক ছাত্রনেতা এ্যাড. আবু রায়হান মাসুদ বলেন, এখনো বেনামে নৌকার হাল ধরেছেন, তারা অতিসত্ত্বর সরাসরি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। বাংলাদেশে দুইটি পক্ষ আছে, একটি স্বাধীনতা পক্ষ, আরেকটি স্বাধীনতার বিপক্ষের পক্ষ। আমরা স্বাধীনতার পক্ষের আওয়ামী লীগ এবং খায়রুজ্জামান লিটন ভাইয়ের হাতকে শক্তিশালী করতে যোগদান করলাম।

যোগদান অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, যখনই নির্বাচন আসে, তখনই একটি চক্র ষড়যন্ত্র করতে সক্রিয় হয়ে উঠে। এসব ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে এবং উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখতে আবারো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

[youtube https://www.youtube.com/watch?v=M34srRTWxBk?feature=oembed]

মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের যে হারে দেশের উন্নয়ন করছেন, আগামী ১০ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম ধনী দেশে পরিণত হবে। উন্নয়নের জন্যে ধারাবাহিকভাবে সময় দিতে হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধারাবাহিকভাবে গত ১০ বছরধরে উন্নয়ন করছেন। আপনার-আমার সন্তানের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য আগামীতে আরেকবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, রাজশাহীকে সুন্দর নগরী গড়তে সবার সহযোগিতা চাই। আসুন আমরা সবাই মিলে সুন্দর রাজশাহীকে গড়ি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর রাজশাহীর জন্য বড় বড় প্রকল্প আনা হবে। আগামী ৫ বছরে রাজশাহীতে ১০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করা হবে।

যোগদান অনুষ্ঠানের আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, নাইমুল হুদা রানা, দপ্তর সম্পাদক মাহবুব উল আলম বুলবুল, ত্রাণ ও সমাজকল্যান বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, সদস্য আহসানুল হক পিন্টু প্রমুখ।

SHARE