ঢাকায় যাচ্ছেন চামেলী, সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস বাদশার

176

স্টাফ রিপোর্টার :পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে ও মেরুদণ্ডের দুই হাড়ের ডিস্ক নষ্ট হয়ে মৃত্যুশয্যায় থাকা বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অলরাউন্ডার চামেলী খাতুনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী থেকে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে।

শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে আকাশপথে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হবে তাকে। প্রথমে তাকে পিজি হাসপাতালে ভর্তি করা হবে। সেখানে মেডিক্যাল গঠিতব্য বোর্ড তার চিকিৎসার তত্ত্বাবধান করবেন। চামেলীর চিকিৎসার সার্বিক দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিকে রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা চামেলীর বাসায় দেখতে গিয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। এসময় এমপি পত্নী অধ্যাপিকা তসলিমা খাতুন উপস্থিত ছিলেন। এমপি পত্নী চামেলীর মাকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এদিকে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আলমগীর কবির চামেলীর বাসায় গিয়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা দিয়েছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক স্বপন চৌধুরীও চামেলীর বাসায় যান। তিনি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হক পাপনের একটি চিঠি চামেলীর কাছে হস্তান্তর করেন এবং তাকে জানান, চিকিৎসা শেষে তার আবাসন সমস্যা সমাধানে সহযোগিতা করা হবে।

চামেলীর বাড়ি রাজশাহী নগরীর দরগাপাড়া এলাকায়। ২০১১ সালে পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেলে চামেলী জাতীয় দল থেকে অবসর নেন। এক সময়ের মাঠ কাঁপানো এই অলরাউন্ডার এখন পার করছেন জীবনের চরম দুঃসময়। লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ার পাশাপাশি মেরুদণ্ডের  দুই হাড়ের ফাঁকে থাকা নরম ডিস্কগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তার শরীরের পুরো ডান পাশ অবশ হয়ে যাচ্ছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার চিকিৎসায় প্রয়োজন অন্তত ১০ লাখ টাকা। কিন্তু সেই সামর্থ্য নেই চামেলীর পরিবারের। খবরটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে তার পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিতে পড়েন চামেলী।

জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদের জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চামেলীর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। শুক্রবার তাকে রাজশাহী থেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তার উন্নত চিকিৎসা চলবে। প্রয়োজনে তাকে দেশের বাইরেও পাঠানো হবে।

SHARE