আদালত বর্জনের কর্মসূচি ঘোষণা সুপ্রিম কোর্ট বারের

180

ঢাকা: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় হাইকোর্টের রায় ঘোষণার পর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন বুধবার (৩১ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর‌্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগ বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) দুপুর দেড়টার পর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শামসুল হক চৌধুরী হলে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় এক রায়ে হাইকোর্ট বিভাগ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিচারিক আদালতের দেওয়া পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বাড়িয়ে ১০ বছর করেছেন। এছাড়া ৫ বছরের দণ্ড থেকে খালাস চেয়ে খালেদা জিয়া এবং ১০ বছরের দণ্ড থেকে খালাস চেয়ে মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে কাজী কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের আপিল খারিজ করেন আদালত।

প্রসঙ্গত, জয়নুল আবেদীন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, একইসঙ্গে খালেদা জিয়ার আইনজীবীও। মঙ্গলবার রায় ঘোষণার সময় তিনি ওই আদালতে ছিলেন না। এরপর দুপুর দেড়টার পর আদালত বর্জনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘বার অ্যাসোসিয়েশন (সুপ্রিম কোর্ট বার) সিদ্ধান্ত নিয়েছি আদালতের স্বাধীনতা সমুন্নত রাখার জন্য, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সমন্নুত রাখার জন্য এবং এ রকম একটা বেআইনি রায় দেওয়া হলো তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদের জন্য বুধবার উভয় বিভাগে, আপিল বিভাগসহ সকাল ৯টা থেকে ১টা পর‌্যন্ত আদালত বর্জনের কর্মসূচি আমরা ঘোষণা করছি।’

তিনি বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ এ কর্মসূচিতে কোনো রকম বাধা আসলে বাধা অতিক্রম করবো। যদি কোনো বাধার সৃষ্টি হয় পরবর্তীতে বিচার বিভাগকে সমুন্নত রাখার জন্য কঠিন কর্মসূচি দেবো।’

এ সময় সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী,  সমিতির সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

SHARE